হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বসানো হয়েছে ইলেকট্রনিক গেট

নিজস্ব প্রতিনিধি

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রথমবারের মতো বসানো হয়েছে ইলেকট্রনিক গেট। আগমন ও বহির্গমনে তিনটি করে মোট ছয়টি ই-গেট স্থাপন করা হয়েছে। গেটগুলো স্থাপনের কাজ শেষ হলেও বাকি রয়েছে কিছু টেকনিক্যাল কাজ। তবে শিগগিরই এসব কাজ সম্পন্ন করে এগুলো চালু করা হবে বলে বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, গেটগুলো এরইমধ্যে ইমিগ্রেশন পুলিশ নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। তথ্যগত ও প্রযুক্তিগত সুবিধাদি নিশ্চিত করা হচ্ছে। ই-পাসপোর্ট সাধারণের হাতে আসার সঙ্গে সঙ্গে ই-গেট ব্যবহার উপযোগী হবে বলে জানিয়েছেন ইমিগ্রেশন পুলিশ।

বিমানবন্দরে কর্মরত ইমিগ্রেশন পুলিশ মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। প্রযুক্তিগত বিষয়াদি আয়ত্তে আনছি আমরা।’

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের গ্রুপ ক্যাপ্টেন তৌহিদ-উল-আহসান বলেন, ‘ই-গেট চালু হলে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের চেহারা পাল্টে যাবে। উন্নত বিশ্বের বিমানবন্দরের আদলে যুগোপযোগী করে গড়ে তোলা হচ্ছে দেশের বৃহৎ বিমানবন্দরকে।’

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম ও সিলেট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ বেনাপোল ও বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আরও বেশ কিছু ই-গেট স্থাপন করা হবে। সবমিলিয়ে, সারা দেশে এর পরিমাণ হবে ৫০টি বা তার বেশি।

এদিকে, গ্রাহকদের হাতে ই-পাসপোর্ট পৌঁছালেই এ গেটের কার্যক্রম শুরু হবে। এতে মাত্র ৩০ সেকেন্ড সময়ের মধ্যেই দেশ-বিদেশের ই-গেট দিয়ে নির্বিঘ্নে বেরিয়ে যেতে পারবেন ই-পাসপোর্টধারী বাংলাদেশি নাগরিকরা।

জানা গেছে, চলতি মাসেই পাওয়া যাবে ই-পাসপোর্ট (ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট)। আগামী ২২ জানুয়ারি থেকে ই-পাসপোর্ট বিতরণ শুরু হবে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সকল প্রস্তুতি ও আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেছে।

আরো পড়ুন