যশোরে উন্নয়ন কর্মকান্ডে বরাদ্দ প্রায় ১৮ কোটি টাকা

নিলয় ধর,যশোর প্রতিনিধি:

যশোর জেলায় ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে এলজিএসপির লোকার গর্ভন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্ট বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য পর্যায়ে ১৭ কোটি ৮১ লাখ ৬ হাজার ৫৫ টাকা বরাদ্দ এসেছে। বরাদ্দকৃত টাকা দিয়ে জেলার প্রতিটি ইউনিয়নে রাস্তার উন্নয়ন কালভার্ট, ড্রেন নির্মাণসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করা হবে বলে জানানো হয়েছে,যশোরের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের উপপরিচালক কামরুল আরিফ। এই টাকার মধ্যে বরাদ্দ এসেছে সদর উপজেলায় ৩ কোটি ৬৮ লাখ ৭৪ হাজার ১১৫ টাকা, মণিরামপুরে ৩কোটি ৭ লাখ ৫৩ হাজার ৯৩০ টাকা, কেশবপুরে ১ কোটি ৮৪ লাখ ৪৬হাজার ৩৬৫ টাকা, অভয়নগরে ১কোটি ৪২ লাখ ২৭ হাজার ৫২৪ টাকা,বাঘারপাড়ায় ১কোটি ৬৬ লাখ ২১ হাজার ৮০৬ টাকা, চৌগাছায় ১কোটি ৭৬ লাখ ১ হাজার ২৫৬ টাকা, ঝিকরগাছায় ২কোটি ৭ লাখ ৫৮ হাজার ৯১১ টাকা ও শার্শায় ২কোটি ২৯ লাক ৩৬ হাজার ৭৫৩ টাকা। এই টাকা দিয়ে প্রতিটি ইউনিয়নে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করবে চেয়ারম্যানরা। যশোর (কালেক্টরেট) সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত এলজিএসপির লোকার গর্ভন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্ট জেলা সমন্বয় কমিটির সভায় এই প্রজেক্টের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। যশোর জেলার প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেছিলেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় যশোরের উপ-পরিচালক কামরুল আরিফ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সকিনা খাতুন, রাইটস যশোরের নির্বাহী পরিচালক বিনয় কৃষ্ণ মল্লিক, উপশহর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসানুর রহমান লিটু, কাশিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মশিউর রহামন সাগর, দেয়াড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান, ইছালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম আফজাল হোসেন, হৈবতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, নরেন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোদাচ্ছের আলী,মণিরামপুরের ঝাঁপা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুল হক মন্টু প্রমুখ।

আরো পড়ুন