দুলারহাটে জমি সংক্রান্ত বিরোধের সংঘর্ষে ৩ নারী আহত

চরফ্যাসন(ভোলা) প্রতিনিধি

ভোলা চরফ্যাসন উপজেলার দুলারহাটে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটনা ঘটেছে। এতে ৩ নারী আহত হয়।

রোববার (৫ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে দুলারহাট থানার নুরাবাদ ইউনিয়নে ৪নং ওয়ার্ড দুলারহাট বাজার সংলগ্নে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনায় আহতদের চরফ্যাসন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন- শিরিনা বেগম (৩৫) স্বামী আঃ কাদির, রোকেয়া (৪০) স্বামী গাজী ও জাহানারা (৫০) স্বামী আঃ মালেক।

স্থানীয়রা জানায়, আব্দুল কাদের গংদের সাথে মোঃ মহসিন ও নিজাম গংদের দীর্ঘদিন যাবত জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। রোববার দুপুরে মহসিন ও নিজাম গংরা জমিতে ঘরের কাজ শুরু করলে কাদেরপক্ষ বাধা দেয়। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে তর্ক-বিতর্কও হয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এক পর্যায়ে মহসিন কাদের গংয়ের এক নারীর গলায় পাইপ জড়িয়ে ফাঁস দিয়ে মেরে ফেলা চেষ্ট করে। তার ভাই নিজাম আরেক নারীর শরিরের ওরনা টেনে শ্লীলতাহানি করে। একপর্যায়ে মহসিন ও নিজাম গংরা মারধর করে ৩ নারীকে আহত করে। এর মধ্যে নিজাম মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গাড়ী চালক হিসেবে নিজেকে পরিচয় দেয়। অন্যদিকে কাদের গংয়ের একজন নারী কাঠ দিয়ে নিজামকে আঘাত করার চেষ্টা করে।

মহসিন ও নিজাম গংয়ের নিজাম বলেন,জমিতে ঘরের কাজ শুরু হলে কাদের গংদের নারীরা পরিকল্পিতভাবে আমাদের ঘরের কাজে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে এতে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

কাদের গংয়ের নাসিম বলেন, আমাদের রেকর্ডীয় ডিয়ারা ও ম্যাপ ফ্লোটের মধ্যে মহসিন ও নিজাম গংরা জোর-জুলুম করে নতুন ঘর উত্তোলনের কাজ শুরু করে। এ ব্যাপারে আমরা চরফ্যাসন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবর লিখিত আকারে অভিযোগ করি। নির্বাহী অফিসার কর্তৃক নোটিশ পাঠানোর পরেও কাজ বন্ধ করেনি মহসিন ও নিজাম গংয়ের লোকেরা। এতে আমরা বাধা দিতে গেলে আমাদের ৩ নারীকে মারধর ও শ্লীলতাহানী করে।

এ ব্যপারে দুলারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ ইকবাল হোসেন বলেন, জমি সংক্রান্ত মারধরের ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরো পড়ুন