উপচে পরা যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে এমভি প্রিন্স অব রাসেল-৫

চরফ্যাসন (ভোলা)প্রতিনিধি:

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় দীর্ঘ দুই মাসের বেশী দিন বন্ধ থাকার পর চালু হয়েছে ভোলার চরফ্যাসন উপজেলার সাথে ঢাকাসহ বিভিন্ন নৌ রুটে লঞ্চ চলাচল। স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার শর্ত স্বাপেক্ষে লঞ্চ চলাচলের কথা থাকলেও লঞ্চ কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করছে না কোনো স্বাস্থ্যবিধি।

আবার অধিকাংশ যাত্রীও সতর্কতা অবলম্বন না করায় করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। অনেক যাত্রীই মানছেননা কোন স্বাস্থ্য বিধি। স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভোলার চরফ্যাসন উপজেলার ঘোষেরহাট লঞ্চঘাটে সোমবার দুপুরে ছিলো যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়। কে কার আগে লঞ্চে উঠবে তা নিয়ে ছিলো এক ধরনের প্রতিযোগীতা। যাত্রীরা হুড়োহুড়ি ও গায়ের সাথে গা মিশে লঞ্চে উঠে।

বিকাল সাড়ে ৪টায় চরফ্যাসন ঘোষেরহাট ঘাট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিলো এমভি প্রিন্স অব রাসেল-৫ নামে একটি যাত্রীবাহী লঞ্চ। কিন্তু ২টা ৩০ মিনিটেই প্রায় তিন হাজার যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি ঘাট থেকে ছেড়ে যায়।

সরেজমিনে দেখাযায়, যাত্রীদের মধ্যে করোনা প্রতিরোধে কোনো ধরনে সতর্কতা অবলম্বন করতে দেখা যায়নি। অনেক যাত্রীর ছিলো না মাক্স। আবার কেউ কেউ মাক্স পড়লেও তা ছিল মুখের নিচে লাগানো। অপর দিকে লঞ্চকর্তৃপক্ষকেও কোন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে দেখা যায়নি। এমভি প্রিন্স অব রাসেল-৫ লঞ্চের ষ্টাপ মোঃ রিপন বলেন, দাবী করেন তারা বিধি মেনেই লঞ্চ চলাচল করছে।

তবে যাত্রিরা স্বাস্থ্যবিধি না মেনে যাতায়াত করলে আমাদের কি করার আছে। এ ব্যপারে বিআইডব্লিউটিএ’র ভোলা নদী বন্দরের সহকারী পরিচালক মো:কামরুজ্জামান জানান, লঞ্চ গুলোকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে যাত্রী পরিবহন করতে হবে। কেউ তা না মানলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরো পড়ুন