হাসপাতালে সাধারণ রোগী ভর্তি সহ সেবার মান পর্যবেক্ষণ করেন লোহাগাড়া উপজেলা ছাত্রলীগ

আব্দুল ওয়াহাব (লোহাগাড়া)চট্টগ্রাম

মরণঘাতি করোনা ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে। লোহাগাড়ায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে উপজেলা প্রশাসন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও থানা পুলিশ। সরকারী হাসপাতালের পাশাপাশি করোনা ভাইরাসে ঝুঁকি নিয়ে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন লোহাগাড়ার বিভিন্ন হাসপাতালগুলো ।

করোনা দুর্যোগে ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দরা কাজ করে যাচ্ছেন। লোহাগাড়ার বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালগুলোর সেবার মান সঠিক ভাবে জনগণের দৌড়গোড়ায় পৌঁছে দিচ্ছেন কিনা তা পর্যবেক্ষণ করেছেন ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দরা। ১৩ জুন সকালে উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা হামিম হোসাইন রবিনের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের একটি টিম উপজেলার বটতলী মোটর স্টেশনস্হ লোহাগাড়া সাউন্ড হেলথ হাসপাতাল,লোহাগাড়া ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতাল, লোহাগাড়া মা মনি হাসপাতাল,লোহাগাড়া জেনারেল হাসপাতালে সাধারণ রোগী ভর্তি ও চিকিৎসকদের রোগী দেখা সহ ফ্লু-কর্ণার এবং আইসোলেশন ওয়ার্ড,জীবাণুনাশক স্প্রে মেশিন আছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ করেন।

এসময় তারা হাসপাতালের কর্তৃপক্ষের সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন। এসময় উপস্হিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আসলাম আহমেদ, রিজভি ওয়াহিদ, আরফাত, রাশেদ, জমিল, সাফিন, সাইমন,তাসি ও আবদুল্লাহ। ছাত্রলীগ নেতা হামিম হোসাইন রবিন জানান, আজ সকালে করোনা দুর্যোগে আমরা উপজেলার বিভিন্ন হাসপাতাল গুলো পর্যবেক্ষণ করেছি। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষদের সাথে কথা বলেছি।লোহাগাড়ার চিকিৎসা সেবার মানে কোন ধরণের অবহেলা না করতে,রোগীদের হয়রানী না করতে হাসপাতালগুলোর কর্তৃপক্ষ কে অনুরোধ জানান।

আরো পড়ুন