সুবর্ণচরে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী ডাক্তার আব্দুল মান্নানের দৌঁড়ঝাপ

নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার ৪নং চর ওয়াপদা ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ডাক্তার আব্দুল মান্নান দৌঁড়ঝাপে এগিয়ে আছেন। প্রতিটি হাট বাজার মসজিদসহ সবখানে তার পদচারনায় মূখর ৪নং চর ওয়াপদা।  ইতিপূর্বে ২০টির অধিক পথসভা করেন তিনি। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি জনসাধারণের একাংশ সামর্থন করছেন তাকে। সকাল থেকে রাত অবধি পুরো ইউনিয়ন চষে বেড়াচ্ছেন ডাক্তার আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া। প্রধানমন্ত্রী  জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরছেন মানুষের মাঝে।  প্রার্থী হিসেবে নিজ ইউনিয়নে কার্যক্রমের সম্ভব্য পরিকল্পনার কথা ও জানান তিনি। 

 

 

০৬ (ফেব্রুয়ারী) শনিবার দিনব্যাপী ৪নং চর ওয়াপদা  ইউনিয়নের একাধিক স্থানে শতাধিক নেতা কর্মি ও সমর্থকদের নিয়ে বিভিন্ন স্থানে গিয়ে জনসাধারণের খোঁজ খবর নেন।

 

 

সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামি লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ডাক্তার আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া দলীয় প্রতিক(নৌকা) পাওয়ার আশা ব্যক্ত করেন।

এমময় তিনি নোয়াখালী উন্নয়নের স্বপ্ন দ্রষ্টা,  করোনাযোদ্ধা মানবিক এমপি একরামুল করিম চৌধুরী উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন জনগনের মাঝে, তিনি বলেন,”একরামুল করিম চৌধুরী এমপি না হলে এই অঞ্চলটি আজ অবহেলিত থাকতো, তিনি আমাদের উপজেলার যে পরিমাণ উন্নয়ন করেছেন তা বিগতদিনে কেউ করেনি।

একরামুল করিম চৌধুরীর উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে ৪নং চর ওয়াপদায় নতুন নেতৃত্ব চায় জনগণ।

 

 

তিনি আরো বলেন, “আমি কারো রক্ত চোক্ষুকে ভয় পাইনা, যারাই যত হুমকি দেক, আমি ভোটের মাঠ থেকে সরে দাঁড়াবোনা, আমি আপনাদের শাসক নয় আপনাদের বন্ধু হতে চাই, আমি চর ওয়াপদা ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়তে একটিবার সুযোগ দিন, আপনারা সজাগ হোন কে কতটুকু উন্নয়ন করেছে খোঁজখবর নিন, আমি গরীবের রক্তচুষতে নয়, গরীবের অধিকার ফিরিয়ে দিতে চাই। সেজন্যই আপনাদের সহযোগিতা ও সমর্থন চাই। গতবার আমাদের মাননীয় সংসদসদস্য’র অনুরোধে আমি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছি,  আমার বিশ্বাস এই বারের নির্বাচনে আমাদের নেতা একরামুল করিম চৌধুরী আমার পাশে থাকবেন।

আরো পড়ুন