সুবর্ণচরে বসতবাড়ির সড়ক মেরামতে বাঁধা, নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি

মো: ফরিদ ,   নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ বসত ঘরের সামনে চলাচলের রাস্তা মেরামতে করতে বাঁধা প্রদান করায় স্থানীয় চরজব্বার থানায় সাধারন ডায়রি করেছেন ভুক্তভোগি যুবক সুবর্ণচর উপজেলার ৫নং চরজুবিলী ইউনিয়নের পশ্চিম চরজুবিলী গ্রামের মৃত হাজি আজিজুল হকের পুত্র আশরাফুল হক ওরপে আশরাফ চৌধুরী (৪০)। জিডি নং ৫৩১-৫৩২। তারিখ ১২/০৬/২১।

ঘটনাটি ঘটে সুবর্ণচর উপজেলা ৫নং চরজুবিলী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের পশ্চিম চরজুবিলী ইউনিয়নের আটকোপালিয়া বাড়ীতে। শনিবার ১২ জুন বেলা ১২ টায় নিজের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় সাধারন ডায়রি করেন আশরাফুল হক।

 

ভুক্তভোগি আশরাফুল হক বলেন, একই গ্রামের মৃত বাদশা মিয়ার ছেলে মাসুদ(২২), সালা উদ্দিন (২৭), সুচরিতা ২৪, ববিতা (২০) শাবনুর (১৮) , বাদশার স্ত্রী পেয়ারা বেগম (৪৭)। আব্দুল হকের পুত্র শাহজাহান (৫৮), নুর নবী চৌধুরীর পুত্র রহিম উল্যাহ(৫২), মিলনের ছেলে রিমেল(২৩)। আমার ওয়ারিশ এবং খরিদ সূত্রে মালিকীয় জায়গায়, চলাচলের রাস্তা তৈরী করতে গেলে আমি এবং আমার স্ত্রীকে অকথ্য ভাষায় গালমন্ধ, এক পর্যায়ে তারা আমাকে মারধরের পরিকল্পা করে।

 

আমি ঘটনাস্থল থেকে আসার পর থেকে উপরোক্ত আসামীগন আমামকে প্রকাশ্য গুম খুনের হুমকি দেয়। তারা দির্ঘদিন ধরে আমার সম্পদ জবরদখল করার পায়তারা করছে। এর আগেও তারা আমাকে মার ধরের প্রস্তুতি নেয়, একটি কুচক্রী মহল তাদেরকে ইন্ধন দেয়ার করনে আমি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছি।

এ বিষয়ে অভিযুকক্তদের সাথে আলাপ করতে চাইলে তাদের মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
চরজব্বার থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি জিয়াউল হক তরিক খন্দকার সাধারন ডায়রির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন “জিডি গ্রহন করা হয়েছে তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা হবে।

আরো পড়ুন