সুবর্ণচরে ইউপি সদস্যকে হামলার ঘটনায় বিচারের দাবী এলাকাবাসীর

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, স্টাফ রিপোর্টারঃ নোয়াখালীর সুবর্ণচরে পূর্ব শক্রতার জেরে ইউপি সদস্য আবুল খায়েরকে (৪৫) মারধর ও চুরিকাঘাত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত ইউপি সদস্য নোয়াখলী সদরের মুন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা শেষে বাড়ীতে আছেন। এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে , ২৫ জুন শুক্রবার সরজমিনে গিয়ে জানাযায় অভিযুক্তরা তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আবুল খায়েরকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি হামলা করে গুরত্বর আহত করে।
আহত আবুল খায়ের উপজেলার ৭নং পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য ও স্থগিত নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী এবং একই ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক।
ঘটনাটি ঘটে গত মঙ্গলবার রাত ১১টার সুবর্ণচর উপজেলার ৭নং পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের ভাংচুর বাজারে।
হামলার শিকার ইউপি সদস্য আবুল খায়ের জানান, ডিস লাইন নিয়ে তার ভাগিনা হারুনের সাথে ভাংচুর বাজারে আমার বাকবিতন্ডা হচ্ছিল। দক্ষি চর মজিদ গ্রামের মৃত হাসানুজ্জানের পুত্র একাধিক মামলার আসামি স্থানীয় সন্ত্রাসী নিজাম ওরপে নিজাম বাহিনী(৪২), আবু ছায়েদের পুত্র সোহেল (৩০), মোঃ সোলেমানের পুত্র আনোয়ার(২৭), মৃত আব্দুল মালেকের পুত্র ছায়েদ(৩২), ফয়েজ আহম্মদের পুত্র হারুন (৩০), নুর হোসেনের পুত্র লাভলু (৩৫), সফি আলমের পুত্র ইলিয়াস(৪৫), অতর্কিত ভাবে তার ওপর হামলা চালিয়ে কপালে ছুরিকাঘাত করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সুবর্ণচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য সদর উপজেলায় প্রেরণ করে কয়েকদিন চিকিৎসা শেষে ২৫ জুন বাড়ী ফেরেন তিনি। এসময় আবুল খায়ের এর ওপর হামলার ঘটনায় উপযুক্ত বিচার বাদী করেন তারা, এঘটনায় আবুল খায়ের বাদী হয়ে চরজব্বার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
এলাকাবাসী বলেন, সোহেল, আনোয়ার এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কামেয় করছে তারা এলাকায় চাঁদাবাজি, মানুষকে হয়রানি, মাদকের সাথে জড়িত রয়েছে আমরা তাদের বিচারের দাবী জানাই। এলাকাবাসী আরো বলেন স্থানীয় নিজাম ওরপে বাহিনী নিজামের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে মামলা নং দায়রা মামলা নং ৩০১/২০০৫, জি আর-৩৩৪/২০০১ , জি আর-১১৪/২০১০, জি আর-৫৬/২০১১, জি আর-৪৯/২০১১, জি আর-১৬/২০১১, এতো গুলো মামলা থাকার পরেও কি ভাবে প্রকাশ্য ঘুরে বেড়ায় তা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্থানীয়রা।
৭নং পূর্ব চরবাটা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল বাশার মঞ্জু জানান, ইউপি সদস্য ও তার ভাগিনার মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তৃতীয় পক্ষ এসে ইউপি সদস্য আবুল খায়েরের মাথা পাটিয়ে দেয়।
অভিযুক্ত নিজামের কাছে ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ঘটনার সাথে যুক্ত নই, ঘটনার দিন হাতাহাতির সময় টিনের সাথে লেগে আবুল খায়েরের শরীরে সামান্য চামড়া চিলে যায়, আমি রাজনীতি করি আমার বিরুদ্ধে যে সব মামলা আছে সব রাজনীতি মামলা, রাজনীতি করলে মামলা থাকবে এটাই স্বাভাবিক।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চরজব্বার থানার এসআই মনির আহম্মদ বলেন, দুই পক্ষ লিখিত অভিযোগ দিয়েছে, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.জিয়াউল হক জানান, এ ঘটনায় উভয় পক্ষে অভিযোগ করেছে , তদন্ত চলমান, তদন্ত শেষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ ০১৮২০ ৫২ ৪৬ ৫৫

আরো পড়ুন