সাংবাদিক সোয়েব চৌধুরীর “অপেক্ষা”

অপেক্ষা

–এ আর সোহেব চৌধুরী–

সাগরের বালি আর রাত্রির নক্ষত্রের তরে,
ঘাসবন প্রান্তরেখায় জোনাকিরা ওড়ে।
আমি ভাবি শুয়ে, সবুজ কচি ঘাসে আকাশপানে তাকায়ে;
কতোদিন দেখিনা তারে।
আবার যদি দেখা হয় এক যুগ পরে,
সেই কেম্পাসের পুকুরপাড়ে।
হয়তোবা বিকেলবেলায়
নিল শাড়ি পরিধানে।
তখন গোধূলি বেলা
হিজলের ডালে লক্ষ্মী পেঁচার খেলা।
ডাহুক ডাকে ঝোপড়ার ভেতর,
চাঁদনির আলোয়
দিঘির জলে
নিল শাপলার ছায়া।
চোখ আমার ছলছলে
ভুলিনি তাহার চোখের মায়া।

শরতের মেঘ আকাশে সন্ধ্যে বেলা-
বলাকাদের দলে
দেখি যদি তোমায় ; নিড়ে ফিরে আসো।
সব ভুলে আমায়
আবার ভালবাসো,
আমি খুঁজি তোমায়
প্রভুর কাছে করি প্রার্থনা।
তোমার অপেক্ষায় চাতক
ঐ দিগন্তে দৃষ্টিপ্রদীপ জ্বেলে
সাগরের বালি আর রাত্রির নক্ষত্রের তরে।
আবার যদি দেখা হয় তোমার সাথে এক যুগ পরে।
চিনবে কি আমায় ঘোর অন্ধকারে?

আরো পড়ুন