সরকারি রাস্তা দখল করে মণিরামপুরে পাঁকা দোকানঘর নির্মাণের অভিযোগ

নূরুল হক, মণিরামপুর প্রতিনিধি:
মণিরামপুরের কোনাকোলা বাজারে এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে সরকারি রাস্তার জমি দখলের পর পাকা স্থাপনা নির্মানের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফলে পথচারীসহ জনসাধারনের চলাচল বাধাগ্রস্থ হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।
জানাযায়, উপজেলার দূর্বাডাঙ্গা ইউনিয়নের কোনাকোলা বাজার থেকে কুশখালী পর্যন্ত পিচের রাস্তা বিদ্যমান রয়েছে। কিন্তু অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় মৃত রেজাউল করিমের ছেলে রিফাত ও তার পরিবারের লোকজন কোনাকোলা বাজারের পশ্চিম প্রান্তে রাস্তার পাশে সরকারি প্রায় ১ শতাংশ জমি দখলের পর সেখানে চারটি পাঁকা দোকানঘর নির্মান করেছেন। অভিযোগ রয়েছে এলাকাবাসী নির্মাণ কাজে বাধা দিলেও কোন কর্নপাত করা হয়নি। ফলে কোন উপায়ন্ত না পেয়ে এ ব্যাপারে পরিত্রান পেতে এলাকাবাসীর পক্ষে কবির হোসেন বাদি হয়ে সম্প্রতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাহী অফিসার সৈয়দ জাকির হাসান এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে সহকারি কমিশনার (ভ‚মি) হরেকৃঞ্চ অধিকারীকে নির্দেশ দেন। সে মোতাবেক এসিল্যান্ড অফিসের কানুনগো আকরামুল ইসলাম সোমবার বিকেলে সরেজমিন যান তদন্ত করতে। আকরামুল ইসলাম জানান, তিনি প্রাথমিক তদন্তে সরকারি রাস্তার জমিতে পাঁকা স্থাপনা নির্মানের অভিযোগের সত্যতা পেয়েছেন। এ ব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত রিফাত হোসেনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি। তবে কোনাকোলা বাজার কমিটির সভাপতি ওয়ার্ড মেম্বার আজিম উদ্দিন জানান, ইতিমধ্যে রিফাত হোসেন ও তার পরিবারের লোকজন সরকারি জমিতে চারটি দোকানঘর নির্মান করেছেন। এ ব্যাপারে সহকারি কমিশনার (ভ‚মি) হরেকৃঞ্চ অধিকারী জানান, তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাবার পর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরো পড়ুন