সরকারি খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ১৪৩ বস্তা চালসহ ডিলার ও চালক গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সরকারি খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজির চাল কালো বাজারে বিক্রির উদ্দেশে অন্য জেলায় পাচারের সময় ১৪৩ বস্তা চাল বোঝাই ভটভটি জব্দসহ ডিলার ও ভটভটি চালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শালমারা ইউনিয়নের মিরাপাড়া গ্রামের আজহার আলীর ছেলে ডিলার জিল্লুর রহমানের (প্রতিবস্তা ৩০ কেজি করে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির সীল যুক্ত) ১৪৩ বস্তা সরকারি খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির চাল কালোবাজারে বিক্রির উদ্দেশে ভটভটি বোঝাই করে বগুড়ার সোনাতলার উদ্দেশে রওনা দেয়। পরে শুক্রবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে শাখাহাতী বলুয়া মোড়ে এলাকাবাসী ভটভটি আটক করে এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রামকৃষ্ণ বর্মণে নেতৃত্বে সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঘটনার সত্যতা পায়। এসময় উপস্থিত জনতার সামনে ভটভটি চালক শিপনকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে বলে,আমি ডিলার জিল্লুর রহমানের পয়েন্ট থেকে গাড়ি লোড দিয়েছি এবং এ চালগুলো জিল্লুর রহমানের। চালগুলি সে বিক্রির উদ্দেশে সোনাতলায় নিয়ে যাওয়ার জন্য গাড়ি ভাড়া করায় আমি সোনাতলার উদ্দেশে চালগুলি নিয়ে যাচ্ছিলাম। সে জানায়, ইতিপূর্বে আরও ৪/৫ বার ডিলার জিল্লুর রহমান আমার গাড়িতে করে সোনাতলা ও গাবতলীর পীরগাছা এলাকায় চাল নিয়ে বিক্রি করেছে।

এ ঘটনার উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামকৃষ্ণ বর্মণ তথ্য নিশ্চিত করতে ডিলারের মিরাপাড়া গোডাউন পরিদর্শন করে স্টক যাচাই করলে গড়মিল খুঁজে পান।পরে ডিলার জিল্লুর রহমান (৫৫)কে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করা হয়। একই সাথে কালোবাজারি বিক্রির উদ্দেশে পাচারের ১৪৩ বস্তা চাল বোঝাই ভটভটি জব্দ ও চালক শিপনকে গ্রেফতার করা হয়।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রামকৃষ্ণ বর্মণ বিষয়টি নিশ্চিত করে করে জানান, এর আগেও ওই ডিলারের বিরুদ্ধে চাল পাচারের অভিযোগ রয়েছে। আজ খবর পেয়ে হাতেনাতে ভটভটি বোঝাই ১৪৩ বস্তা খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর চালসহ গ্রেফতার করা হয়।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি(তদন্ত) আফজাল হোসেন জানান, গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫(১)এর ২৫-ঘ ধারায় থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

 

আরো পড়ুন