শার্শার দেশ সেরা উদ্ভাবক মিজান কেশবপুর অভূক্ত কালো হুনুমানের খাবার দিল।

শার্শা প্রতিনিধি : অভূক্ত কালো মুখো হনুমানদের খাবার খাওয়াতে যশোরের শার্শা উপজেলার দেশ সেরা উদ্ভাবক খ্যাত ও সমাজ সেবক মিজান এবার ঘুরে এলেন যশোরের কেশবপুর থেকে।

সোমবার সকাল থেকে দিনব্যাপী কেশবপুরের অলিতে-গলিতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কালো মুখো হনুমানদের কলা, রুটি, বাদাম সহ অন্যান্য খাদ্য সামগ্রী নিজ হাতে খাওয়ায়ে দেন তিনি।

এসময় উদ্ভাবক মিজানুর রহমান বলেন, করোনা ভাইরাস মহামারী পরিস্থিতির পর থেকে মানুষ কিছুটা অর্থ সংকট ও ঘরবন্দী অবস্থায়।

যার ফলে কেশবপুরের কালো মুখো হনুমান পল্লীর এই বোবা প্রাণিরা অনেকটা অভূক্ত হয়ে পড়েছে। সঠিক পরিমাণ খাদ্য না পেয়ে তারা খাবারের সন্ধানে বিভিন্ন এলাকায় ছুটে বেড়াচ্ছে। তাদের একদিনের খাবার নিবারনের জন্য আজ আমার এখানে আশা।

অন্যদেরকেও বলতে চাই মানুষের পাশাপাশি এসমস্ত বোবা প্রাণিদের পাশে আমরা সকলে একেক করে দাঁড়ায়। তাহলে গোটা বছর জুড়ে তাদের খাবারের অভাব হবেনা। দিনে দিনে বিলুপ্ত হাওয়া থেকে রক্ষা পাবে কালো মুখো হনুমান।

ফিরতি পথে উদ্ভাবক মিজান কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম. এম. আরাফাত হোসেন মহোদয়ের সাথে কালো মুখো হনুমান সহ বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনিময় ও সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল এস এর কেশবপুর উপজেলা প্রতিনিধি আক্তার হোসেন ও সম্মিলিত সামাজিক জোট যশোরের সাধারণ সম্পাদক মুর্শিদ হাসান ইমন সহ স্থানীয়রা।

আরো পড়ুন