লালমোহনে পাঁচ জুয়ারীকে ১ মাসের সাজা, কনস্টেবল রহিমের মিশন ব্যর্থ

ভোলা জেলা প্রতিনিধি

ভোলা  লালমোহনে পাঁচ জুয়ারীকে ১ মাসের সাজা দেয়া হয়েছে। লালমোহন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুল হাসান রুমি ১৫ এপ্রিল দুপুরে মোবাইল কোর্টে সাজা দেন। 

জানা যায়, লালমোহন উপজেলার ধলী গৌর নগর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড থেকে ১৫ মে রাত গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে কামাল, বজলু, সফি, লাভলু এবং কাসেম নামের পাঁচ জুয়ারীকে এসআই উত্তমের নেতৃত্বে আটক করে মঙ্গল শিকদার ফাঁড়ির পুলিশ।

পরে আটককৃত জুয়ারীদের লালমোহন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুল হাসান রুমির মোবাইল কোর্টে হাজির করা হলে তিনি তাদের ১ মাসের সাজা প্রদান করেন।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, আটককৃত জুয়ারীদের ছাড়িয়ে নিতে অত্র ফাঁড়ির কনস্টেবল রহিমের মাধ্যমে তদবির চালায় জুয়ারী চক্র।

প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের চোখ ফাঁকি দিয়ে মঙ্গল শিকদার এলাকাসহ ধলী গৌর নগর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে জুয়ারীদের থেকে মাশোয়ারা নিয়ে রমরমা জুয়ার আসর চালান এই রহিম। জুয়ার আসর থেকে কালেকশন করার সুবাদে জুয়ারীদের সাথে পুলিশ রহিমের সখ্যতা গড়ে ওঠে। অবশেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাবিবুল হাসান রুমি ও লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবিরের সৎ বলিষ্ঠতায় পুলিশ সদস্য রহিমের নামমাত্র জরিমানা দিয়ে জুয়ারী ছাড়িয়ে নেয়ার মিশন ব্যর্থ হয়।
এবিষয়ে জানতে চাইলে পুলিশ সদস্য রহিমের থেকে কোন সদুত্তর পাওয়া যায়নি।

আরো পড়ুন