লালমোহনে ইউপি সদস্যের উপর হামলাঃ দোকান লুটের অভিযোগ

ভোলা জেলা প্রতিনিধি:

ভোলার লালমোহনের রমাগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্যের উপর হামলা ও তার দোকান লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ৫নং ওয়ার্ড রায়চাঁদ দক্ষিণ বাজারে এ ঘটনা ঘটে। হামলার ঘটনায় ইউপি সদস্য বশির আহমদসহ (৪৫) ৩ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ইউপি সদস্য মোঃ বশির আহমদ লালমোহন থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ ও আহতদের সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার বিকালে বশির মেম্বার বাড়িতে তুচ্ছ ঘটনায় মেম্বারের ছেলে রাজ্জাক কে মারধর করে মেম্বারের বড় ভাইয়ের স্ত্রী পারুল বেগম। ওই ঘটনার জের ধরে একইদিন সন্ধ্যায় পারুল বেগমের বাবা ৭নং ওয়ার্ড পুর্ব চরউমেদ গ্রামের বাসিন্দা মোঃ ইদ্রিস তার দুই ছেলে মঞ্জু ও পারভেজসহ স্থানীয় সন্ত্রাসীদের নিয়ে রায়চাঁদ বাজারের অবস্থিত মেম্বার বশিরের কিটনাশকের দোকানে হামলা চালায়।

এসময় মেম্বার বশিরকে মারধর ও তার দাড়ি টেনে ছিঁড়ে ফেলাসহ কিটনাশক দোকানের প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার মালামাল ও নগদ ৩৭ হাজার টাকা লুটে নেয় বলেও অভিযোগের বিবরণে উল্লেখ্য করা হয়।

এদিকে পিতাকে হামলার হাত থেকে বাঁচাতে এসে হামলাকারীদের আঘাতে আহত হয় মেম্বারের ছেলে নয়ন ও মৃত মোজাম্মেল হকের ছেলে আবুল কালাম নসু। আহতরা লালমোহন সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে হামলার ঘটনা অস্বীকার করে মোঃ ইদ্রিস মিয়া বলেন, দোকানে কোন হামলা বা লুটপাট হয়নি। তবে থাপড় চোপাড়ের ঘটনা ঘটেছে।

লালমোহন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাকসুদুর রহমান মুরাদ বলেন, এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরো পড়ুন