লকডাউন বাস্তবায়নে খুলনায় ৩৮ মামলায় ১৮ হাজার ৬শত ৫০ টাকা জরিমানা আদায় –

স্বীকৃতি বিশ্বাস, বিশেষ  প্রতিনিধিঃ
বৈশ্বিক মহামারী করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারতের পার্শ্ববর্তীযশোর,খুলনা,সাতক্ষীরা,চুয়াডাঙ্গা,মেহেরপুর,ঝিনাইদহ,বাগেরহাট,কুষ্টিয়া,নড়াইল ও মাগুরা জেলায় করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা গাণিতিক হারে প্রতিদিন বেড়েই চলছে।আজও খুলনা বিভাগের এই ১০ জেলায় করোনা সংক্রমিত হয়ে সর্বোচ্চ ৩৯ জন মৃত্যু বরণ করেছেন।মৃত্যুর এই মহামিছিলের বিষাক্ত রথ যেন কিছুতেই থামানো যাচ্ছে না।কারণ হিসাবে দেখা যায় খুলনা বিভাগের অধিকাংশ করোনায় আক্রান্ত রোগীর শরীরে ডেল্টার প্রভাব পরিলক্ষিত। যা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতানুসারে করোনার সব চেয়ে মারাত্মক ভ্যারিয়েন্ট। ফলে ডেল্টার সংক্রমিত অধিকাংশ লোক অতিমাত্রায় সুস্থ্যলোকদের সংক্রমিত করছে এবং মৃত্যুর দোয়ারে পৌঁছে দিতে সহযোগিতা করছে।

আর তাই করোনার সংক্রমণের এই চেইন ধ্বংস করার জন্য দেশব্যাপী করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে ১ জুলাই -২০২১ থেকে বাংলাদেশ সরকার সারাদেশে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছেন। আর এই বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে কাজ করছে জেলা প্রশাসন,পুলিশ,বিজিবিসহ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

তারই ধারাবাহিকতায় ২ জুলাই-২০২১ রোজ শুক্রবার সকালে সমগ্র দেশের ন্যায় খুলনা জেলাতেও সরকারি নির্দেশনা যথাযথ বাস্তবায়নের জন্য খুলনা মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ৮ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন এবং স্বাস্থ্যবিধি পালন না করা ও অকারণে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করার দায়ে ৩৮ জনকে ৩৮ টি মামলায় ১৮ হাজার ৬ শত ৫০ টাকা জরিমানা করেন।

উল্লেখ্য যতদিন পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে না আসবে ততদিন পর্যন্ত এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আরো পড়ুন