যশোরে পতাকার অবমাননায় ব্যাংক কর্মকর্তাসহ দুইজন প্রত্যাহার

নিলয় ধর, যশোর প্রতিনিধি : বিজয় দিবসে যশোরের মণিরামপুরে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের শাখায় ঝাড়ুর স্ট্যান্ডে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের অভিযোগ উঠায় শাখা ব্যবস্থাপক ফারুকুজ্জামান ও ব্যাংকের গার্ড আনসার সদস্য জাহাঙ্গীর আলমকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ফারুকুজ্জামানের স্থলে তৌহিদুর রহমান নামে একজন কর্মকর্তাকে ওই শাখার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।ব্যাংটির যশোর অঞ্চলের উপ-মহা ব্যবস্থাপক শফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

তিনি বলেছেন, ফারুকুজ্জামানকে প্রত্যাহার করে যশোর প্রধান অফিসে সংযুক্ত করা হয়েছে। তাকে সাময়িক বহিস্কারের প্রক্রিয়া চলছে। আনসার সদস্য (গার্ড) জাহাঙ্গীর আলমকে হেড কোয়াটারে সংযুক্ত করা হয়েছে।

সোনালী ব্যাংক মণিরামপুর শাখার নতুন ব্যবস্থাপক তৌহিদুর রহমান বলেছেন, আগের ব্যবস্থাপককে যশোর প্রধান শাখায় ক্লোজ করা হয়েছে। এখন আমি দায়িত্বে আছি।

বিজয় দিবস উপলক্ষে বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) সকালে সোনালী ব্যাংক মণিরামপুর শাখায় রঙিন ছোট স্ট্যান্ডে দায়সারাভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়েছিল। যেটিকে ঝাড়ুর ভাঙা স্ট্যান্ড মনে করে ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয়রা। কয়েকজন ব্যাংকের লোগোসহ ছবি তুলে নিজেদের ফেসবুক আইডিতে পোস্টও দেন। দ্রুত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবিটি ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনা শুরু হয়। ব্যাংকের এই শাখা কর্তৃপক্ষ জাতীয় পতাকার অবমাননা করায় বিচারের দাবি তুলে অনেকে মন্তব্য দেয়।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ জাকির হাসান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) পলাশ দেবনাথ, থানার ওসি রফিকুল ইসলাম ও ওসি (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। (ইউএনও’র) উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত স্ট্যান্ড পরিবর্তন করে দায়িত্বরত গার্ড।

 

ঘটনাস্থল থেকে ইউএনও সৈয়দ জাকির হাসান বিষয়টি ব্যাংকের ডিজিএমকে জানিয়েছেন। এর পরপরই শাখা ব্যবস্থাপক ফারুকুজ্জামানের বিরুদ্ধে তৎপর হন ব্যাংকটির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ।

যদিও ব্যাংকের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, স্ট্যান্ডটি ঝাড়ুর হাতল নয়, ওটা ছিল নিজেদের সুরক্ষায় ব্যবহৃত রঙিন জিআই পাইপ।।

আরো পড়ুন