যশোরে নতুন কলেবরে, নতুন এলাকা নিয়ে আরও এক সপ্তাহ লকডাউন বাড়ছে-

স্বীকৃতি বিশ্বাসঃ

বৈশ্বিক মহামারী করোনার সুপার সাইক্লোন আস্তে আস্তে সীমান্তবর্তী যশোর জেলার বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে এবং নতুন নতুন এলাকায় সংক্রমণের প্রভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। সংক্রমনের ব্যাপ্তি ছড়িয়ে পড়ায় যশোর জেলার যশোর পৌরসভা ও অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়া পৌরসভার সাথে চাঁচড়া,উপশহর, আরবপুর,নওয়াপাড়া ইউনিয়ন, ঝিকরগাছা উপজেলার ঝিকরগাছা পৌরসভা, শার্শা উপজেলার শার্শা ইউনিয়ন ও বেনাপোল থানার বেনাপোল পৌর এলাকার বাজার নতুন করে লকডাউনের আওতায় আসছে।
করোনা সংক্রমণের উর্দ্ধগতির কারণে গত ৯ জুন দিবাগত মধ্য রাত থেকে যশোর পৌরসভা ও অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়া পৌরসভা এলাকার কঠোর লকডাউন আরোপ করা হয়েছিল। কিন্তু করোনার সংক্রমণ পূর্বের থেকে আরও বেশী হওয়ায় ১৫ জুন-২০২১ রোজ মঙ্গলবার বিকালে করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ কমিটির সভা জেলা প্রশাসকের মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় যশোর জেলার করোনা পরিস্থিতির সার্বিক বিষয় পর্যালোচনা করে লকডাউনের সময় এক সপ্তাহ বৃদ্ধি করা হয় এবং ছোট ছোট পকেট আকারে এলাকা ভিত্তিক লকডাউন দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
লকডাউন চলাকালে পূর্বে ঘোষিত বিধিনিষেধ কার্যকর থাকবে।অভ্যন্তরীণ কোন রুটে বাস চলবে না তবে দূরপাল্লার গাড়ি চালু থাকবে।

উল্লেখ্য সীমান্তবর্তী যে ১৩ জেলাকে করোনার উচ্চ ঝুঁকি হিসাবে সনাক্ত করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় তার মধ্যে যশোর একটি। উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশনা মোতাবেক যশোর জেলাতে লকডাউন কার্যকর করা হলেও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতির কোন উন্নতি না হওয়ায় পুনরায় নতুন কলেবরে ও নতুন এলাকা সংযোজন করে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হলো।
আজকের এ সভায় জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ তমিজুল ইসলাম খান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল,নব নির্বাচিত পৌর মেয়র হায়দার গণী খান পলাশসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা,যশোর জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার লোক উপস্থিত ছিলেন।

আরো পড়ুন