যশোরে গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যুবরণ ৯ জনের ও সনাক্ত ২৮১ জন

স্বীকৃতি বিশ্বাস, যশোর :

করোনা মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ বাংলাদেশের শহর থেকে গ্রাম পর্যন্ত ছড়িয়েছে। করোনার এই বেপরোয়া ছড়ানোর জন্য পার্শ্ববর্তী দেশের ভ্যারিয়েন্ট ডেল্টাকে সহযোগিতা করছে বেনাপোল স্থল বন্দর দিয়ে আসা বৈধ আর অবৈধ অনুপ্রবেশকারী।সীমান্তের স্থল বন্দর দিয়ে ভারত থেকে বৈধভাবে দেশে প্রবেশকারী অনেক করোনা পজেটিভ রোগী প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি না হয়ে গণপরিবহনে নিজের বাড়ি গিয়েছেন, ঘুরেছেন ফিরেছেন এবং আবার প্রশাসনের সহযোগীতায় ধরে এনে বন্য প্রাণীর মতো করিডরে বন্দী করছেন।কিন্তু ঐ সকল ব্যক্তি যাদের সংস্পর্শে গিয়েছিলেন  তাদেরকে আলাদা করা হয়নি বা করার চেষ্টাও করা হয়নি।ফলে বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্ত লোকের সংখ্যা যেমন বৃদ্ধি হয়েছে তেমনি আক্রান্ত ৮০ শতাংশের শরীরে অতি সংক্রমণশীল ভারতীয় ধরণ পরিলক্ষিত হচ্ছে।

 

আজ ৩০ জুন-২০২১ রোজ বুধবার যশোর জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের মুখপাত্রের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘন্টায় দেশের সীমান্তবর্তী যশোর জেলার করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে করোনা ও করোনার উপসর্গ নিয়ে ৯ জন মৃত্যু বরণ করেছেন। তারমধ্যে ৩ জন করোনায় এবং ৬ জন করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরণ করেন।

 

তিনি আরও বলেন, গত ২৪ ঘন্টায় বিভিন্ন ল্যাবে ৬৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৮১ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পরিলক্ষিত হয়েছে। সনাক্তের হার ৪০.৮৪ শতাংশ। এছাড়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ৯৯ শয্যার বিপরীতে ভর্তি আছেন ১৪৯ জন।ফলে রোগীদের চিকিৎসা দিতে ডাক্তার ও নার্সদের হিমসিম খেতে হচ্ছে।

আরো পড়ুন