যশোরে আন্তঃজেলা ডাকাতদলের ৪ সদস্য গ্রেফতার-

স্বীকৃতি বিশ্বাস, যশোরঃ

যশোর- খুলনার বিভিন্ন এলাকায় ডাকাতদের দৌরাত্ম দেখা যায়।তারা বিভিন্ন সময় ডিবি পুলিশের সদস্য পরিচয় দিয়ে ফাঁকা জায়গায় গাড়ি অবরোধ করে ডাকাতি করে।

ঠিক একইভাবে গতকাল ভোরে গাড়ির ডাইভার ইকবাল হোসেন এবং সঙ্গীয় যাত্রীকে নিয়ে ঢাকা থেকে সাতক্ষীরার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে রূপসা ফেরিঘাট হয়ে খুলনা জেলার ডুমুরিয়া থানার গুটুদিয়া নামক স্থানে আসলে ডাকাত দলের সদস্যরা ১ টি মাইক্রোবাস ও ১ টি প্রাইভেটকার দিয়ে গতিরোধ করে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে গাড়ির ড্রাইভার ও যাত্রীকে আটক করে এবং চোখ- হাত- পা বেঁধে যশোর জেলার বাঘারপাড়া থানার সাইটখালী এলাকায় ফেলে চলে যায়।
স্থানীয় জনগণ তাদের উদ্ধার করে সার্বিক বিষয় জানতে পেরে বাঘারপাড়া থানায় অবহিত করলে এলাকার লোকজনের সার্বিক প্রচেষ্টায় সকাল ১০ টায় সুকদেব নগর এলাকা থেকে লুন্ঠিত মাইক্রোবাস ও গাড়িতে থাকা ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার মালামালসহ
১। মিজানুর রহমান(৪০), পিতা-মৃত মুক্তার হোসেন, গ্রাম-নয়নপুর, থানা-নড়াগাতি, জেলা-নড়াইল,
২। জাহাঙ্গীর হোসেন(৩০), পিতা-মোঃ জমাত আলী, গ্রাম-মাছখোলা, থানা ও জেলা-সাতক্ষীরা,
৩। দেলোয়ার হোসেন(৫২), পিতা-নাজির উদ্দিন শেখ, গ্রাম- সেতাই, থানা- শার্শা, জেলা, যশোর ও
৪। মোঃ কামরুজ্জামান(৩৫), পিতা-নুরুল ইসলাম, গ্রাম -সেতাই, থানা-শার্শা, জেলা-যশোরকে গ্রেফতার করেন।

উল্লেখিত বিষয়ে মাইক্রোবাসের চালক ইকবাল হোসেন বাঘারপাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন।

ঘটনাটি চাঞ্চল্যকর ও স্পর্শকাতর হওয়ায় যশোর জেলার গোয়েন্দা বিভাগের বিশেষ টীম তদন্তে নেমে ধৃত আসামিদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী খুলনা মেট্রোপলিটনের খালিশপুর থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত ১ টি প্রাইভেটকার, ২ টি চাকু,লুন্ঠিত নগর ২০ হাজার টাকা ও ২ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পারেন, ধৃত ও পলাতক আসামিগণ একটি সংঘবদ্ধ আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য।আরো জানতে পারেন আসামিরা গাড়িতে স্বর্ণ আছে এই খবরের আলোকে বাদী ও অন্য একজনকে আটক করেন।বিষয়টি সন্দেহজনক হওয়ায় তদন্ত অব্যাহত আছে।

আরো পড়ুন