যশোরের সাংবাদিক মিজানুর রহমান তোতা আর নেই

রিপন হোসেন সাজু।।

প্রেসক্লাব যশোরের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক ইনকিলাবের বিশেষ প্রতিনিধি মিজানুর রহমান তোতা আজ শনিবার (১৭ জুলাই) সকাল ৭টার দিকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।
এর আগে অসুস্থ হয়ে পড়লে সাংবাদিক মিজানুর রহমান তোতাকে ৩ জুলাই বিকেলে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসকরা তার শারীরিক অবস্থা গুরুতর দেখে ইনসেটিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তি করেন। তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন।
মিজানুর রহমান তোতার ছেলে শাহেদ রহমান জানান, বাবা বেশকিছু দিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। এর মধ্যে তার করোনা টেস্ট করানো হয়। টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট আসে। ৩ জুলাই ৩টার দিকে বাসায় তিনি স্ট্রোক করেন। এ সময় তার অক্সিজেন লেভেলও (৩৮) অনেক কমে যায়। সঙ্গে সঙ্গে বাবাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে অক্সিজেন লেভেল কিছুটা উন্নতি হয়েছিল। কিন্তু আজ সকালে…।
মিজানুর রহমান তোতা ৪৫ বছর ধরে সাংবাদিকতা করছেন। এর মধ্যে একটানা ৩৫ বছরই তিনি কাজ করেছেন দৈনিক ইনকিলাবে। যশোর সংবাদপত্র জগতে বিচরণ করে অবিভক্ত যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি, একবার প্রেসক্লাব যশোরের সেক্রেটারি ও তিনবার সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ১৯৭৭ সাল থেকেই ছড়া, কবিতা, সংবাদ লেখালেখিতে প্রবেশ। ১৯৭৮ সালে দৈনিক গণকন্ঠের রিপোর্টার, সমাচারের স্টাফ রিপোর্টার, ১৯৭৯ সালে দৈনিক স্ফুলিঙ্গের স্টাফ রিপোর্টার, ১৯৮০ সালে পিআইবির লং কোর্সের প্রশিক্ষণ, পরবর্তীতে দৈনিক স্ফুলিঙ্গের নিউজ এডিটর, দৈনিক ঠিকানায় এক্সিকিউটিভ এডিটর, দৈনিক আজাদের স্টাফ রিপোর্টার ও বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। এর মধ্যে সাপ্তাহিক ছুটি, সাপ্তাহিক পূর্ণিমায় খণ্ডকালীন লেখালেখি, তারপর থেকেই দৈনিক ইনকিলাবে একটানা ৩৫ বছরই তিনি কাজ করছেন।

সাংবাদিকতার ওপর তার ‘মাঠ সাংবাদিকতা’ এবং আত্মজৈবনিক গ্রন্থ ‘ক্ষতবিক্ষত বিবেক’ নামের গ্রন্থ দুটি ইতোপূর্বে খুবই সমাদৃত হয়েছে। প্রথিতযশা এই সাংবাদিক সাহিত্যচর্চা করেন বহুদিন। তার অসংখ্য কবিতা দেশে-বিদেশের পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। তার নির্বাচিত ৮০টি কবিতা নিয়ে ‘দিবানিশি স্বপ্নের খেলা’ কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশ হয়েছে।

সিনিয়র সাংবাদিক মিজানুর রহমান তোতার ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন মনিরামপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ফারুক আহমেদ লিটন, সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেনসহ মনিরামপুর প্রেসক্লাবের সকল সাংবাদিক বৃন্দ।

আরো পড়ুন