মণিরামপুরের কোনাকোলা বাজারে সরকারি জমি খেকোদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় জীবননাশের হুমকি

মণিরামপুর প্রতিনিধি:

মণিরামপুরের কোনাকোলা বাজারে এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে সরকারি জমি দখলের পর পাঁকা স্থাপনা নির্মানের অভিযোগ করায় বাদিসহ প্রতিবাদীদের মারপিটসহ জীবননাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সরকারি জমি খেকো রিফাতের নেতৃত্বে এক ছাত্রনেতাসহ ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা সোমবার সন্ধ্যার পর এ ঘটনা ঘটিয়েছে। আর এ বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকাবাসীর মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানাযায়, উপজেলার দূর্বাডাঙ্গা ইউনিয়নের কোনাকোলা বাজারে স্থানীয় মৃত রেজাউল করিমের ছেলে রিফাত ও তার পরিবারের লোকজন রাস্তার পাশে সরকারি জমি দখল করে চারটি পাঁকা দোকানঘর নির্মান করে। অভিযোগ রয়েছে এলাকাবাসী নির্মান কাজে বাধা দিলেও কোন কর্নপাত করা হয়নি। ফলে এ ব্যাপারে পরিত্রান পেতে এলাকাবাসীর পক্ষে স্থানীয় কবির হোসেন বাদি হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। ফলে এসিল্যান্ড অফিসের কানুনগো আকরামুল ইসলাম সোমবার বিকেলে সরেজমিন তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পান।

কিন্তু অভিযোগ রয়েছে সোমবার বিকেলে কানুনগো তদন্ত শেষে সেখান থেকে চলে আসার পর সন্ধ্যার দিকে কোনাকোলা বাজারে সরকারি জমি খেকো রিফাত এবং স্থানীয় এক ছাত্রনেতা অভিযোগকারী কবির হোসেনকে মারপিট করতে উদ্যত হয়। কবির হোসেন জানান, এ সময় স্থানীয় লোকজন তাকে রক্ষা করেন। পরে মোবাইল ফোনে ওই ছাত্রনেতা তাকে অকথ্যভাষায় গালিগালাজ করে নির্বাহী অফিসারের কাছে করা অভিযোগ প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন। অন্যথায় তাকে মারপিটসহ জীবননাশেরও হুমকি দেওয়া হয়। একই অভিযোগ করেন স্থানীয় অপর প্রতিবাদী যুবক আতাউর রহমান। তিনি জানান, রিফাতের পক্ষে ওই ছাত্রনেতা তাকেও হুমকি দিয়েছেন এ ব্যাপারে বাড়াবাড়ি না করার জন্য। তবে অভিযুক্ত রিফাত তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সমুহ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন। এদিকে সহকারি কমিশনার (ভ‚মি) হরেকৃঞ্চ অধিকারী জানান, সরকারি জমিতে অবৈধ স্থাপনা দ্রুত উচ্ছেদের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরো পড়ুন