ভোলায় প্রন্তিক কৃষকের মাঝে ডাকসেবা পৌছে দিচ্ছেন পোস্ট অফিস পরিদর্শক ইমরান হোসেন।

 এ.এইচ রিপন লালমোহ (ভোলা )প্রতিনিধিঃ

দ্বীপ জেলা ভোলার প্রন্তিক কৃষকদের মাঝে করোনা ভাইরাসের মধ্যে ডাকসেবা দিয়ে যাচ্ছেন দক্ষ পোস্ট অফিস পরিদর্শক মোঃ ইমরান হোসেন। সাধারন মানুষ যখন ঘর বন্ধি তখন সরকারী ডাকসেবা গ্রামের সাধারন মানুষের কাছে পৌছে দিয়েছেন এই কর্মকতা ইমরান হোসেন। ভোলা জেলা পোস্ট অফিস পরিদর্শক ইমরান হোসেনের কাছে গ্রামের মানুষের ডাকসেবার কথা জানতে চাইলে, তিনি জানান, আপনারা জানেন গ্রামবাংলার সাধারন মানুষের কল্যানে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ ডাকবিভাগ।দ্বীপ জেলা ভোলার মানুষ সকল বিভাগ থেকে বিছিন্ন এতে সাধারন মানুষের সেবা পেতে কাজ করে বাংলাদেশ ডাকবিভাগ। মহামারী করোনা ভারাইসের মধ্যে একমাত্র সেবা প্রদান করে যাচ্ছে পোস্ট অফিস গুলো। আমাদের ডেপুটি পোস্ট মাস্টার জেনারেল মিজানুর রহমান স্যারের দক্ষতায় আমি দ্বীপ  জেলার বিভিন্ন চর অঞ্চালে ডাকসেবা পৌছে দিচ্ছি।এতে উপকৃত হচ্ছে ভোলার চর অঞ্চালের সাধারন কৃষক।

এছাড়া কৃষি পন্য আমরা পৌছে দিচ্ছি রাজধানী ঢাকায়। এছাড়া আমরা কিছুদিন আগে করোনা ভাইরাসের সকল সুরক্ষার সামগ্রী পৌছে দিয়েছি ভোলার সিভিল সার্জনের কাছে। আমরা মানুষের কল্যানে কাজ করি।আমাদের ভোলা জেলা প্রতিটি পোস্ট অফিস খোলা রাখা হয়েছে। প্রতিটি পোস্ট অফিসের পোস্টমাস্টার দক্ষতার সহিত সেবা প্রদান করে যাচ্ছে। ভোলায় বেশির ভাগ মানুষ বাংলাদেশ ডাকবিভাগের সাথে লেনদেন করে। ভোলায় সাধার কৃষক ব্যাংক হিসাবে ডাকবিভাগ কে বেচে নিয়েছে।প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ টাকা লেনদেন হচ্ছে ভোলার পোস্ট অফিস গুলোতে। পোস্ট অফিসের সেবার ব্যাপারে কৃষক করিমের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আজ আমরা কৃষক উপকৃত হতে পারছি পোস্ট অফিস থেকে সেবা নিয়ে। আমি কিছু দিন আগে রাজধানী ঢাকা থেকে কৃষি পন্য ক্রয় করে পোস্ট অফিসের মাধ্যমে সহজে হাতে পেলাম।এছাড়া আমি প্রায় সময় পোস্ট অফিস থেকে লেনদেন করি। তাই পোস্ট অফিস এই মহামারীর মধ্যে চালু রাখায় ধন্যবাদ জানাই বাংলাদেশ সরকার কে,ধন্যবাদ জানাই ভোলার পরিদর্শক কে।

আরো পড়ুন