বেনাপোলে শীর্ষ সন্ত্রাসীও মাদক সম্রাট আব্দুর রব গ্রেফতার

বেনাপোল প্রতিনিধি :যশোরের শার্শা উপজেলার বেনাপোল পোর্ট থানাধীন বাহাদুরপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের শীর্ষ সন্ত্রাসী ও মাদক সম্রাট আব্দুর রব(৪৫) কে গ্রেফতার করেছে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ।

গতকাল রবিবার (২৫ এপ্রিল) সন্ধ্যার সময় ঐ ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের পশ্চিমপাড়ার তার বাড়ীর কাছ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে ঐ গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ বলছে,রবিবার সকালের দিকে ঐ ইউনিয়নের মাইনকা গ্রামের সারবাংহুদা বাজারের কামারুল(৩০) নামের এক ব্যবসায়ীকে আসামী শীর্ষ সন্ত্রাসী ও মাদক সম্রাট আব্দুর রব তার বাহিনী নিয়ে তাকে তার বাসা থেকে উঠিয়ে নিয়ে যায়। ব্যবসায়ী কামরুল কে একটি তালাবদ্ধ ঘরে আটকিয়ে বেধড়ক মারধর করে তাকে গুরুতর জখম করে বন্দী করে সেখানে আটকিয়ে রাখে।
পরে গ্রামবাসী এ খবরটি থানায় জানালে,বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশ সেখান থেকে কামারুল কে উদ্ধার করে। অপরদিকে পাশের বাড়ীতে পালিয়ে থাকা সন্ত্রাসী আব্দুর রব কে পুলিশ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।
এদিকে,কামারুলের উদ্ধারে তার পরিবার সারবাংহুদা বাজারের ব্যবসায়ীগণ সন্ত্রাসী আঃরব কে পুলিশের হাতে ধরিয়ে দেওয়ায় সন্ত্রাসী রবের বাহিনী গতকাল সন্ধ্যা ৭টার দিকে সারবাংহুদা বাজারে ব্যবসায়ীদের উপর আক্রমণ চালায়। তিনজনের হাতে একটি দোনলা বন্দুক,২টি পিস্তল এবং কয়েকটি হাত বোমা দেখতে পায় এলাকাবাসী। তারা ঐ বাজারের এক ধাণ্য ব্যবসায়ী শাহাবুদ্দীন শিয়া’র মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে বলে ” রব কে ধরিয়ে দিয়েছে কে কে বল” তারা রব কে ছাড়ানোর জন্য বড় অংকের টাকা দাবি করে ভয় দেখায় এবং চড় থাপ্পড় মারে। পরে বাজারের লোকজনের চিৎকারে সন্ত্রাসী পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।
ঘটনার বর্ননা দিয়ে ধাণ্য ব্যবসায়ী শাহবুদ্দিন শিয়া এবং সেখানকার একজন বাসিন্দা সিএন্ডএফ ব্যবসায়ী তারিকুজ্জামান বলেন, সন্ত্রাসী রবের পাশাপাশি চিহ্নিত ঐ তিন সন্ত্রাসী অবিলম্বে গ্রেফতার করার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানান। তারা এখন ঐ বাহিনী কর্তৃক আতংকিত রয়েছেন। সন্ত্রাসীরা গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত তারা দোকানপাঠ বন্ধ রাখবেন বলে জানিয়ে দেন।
ঘটনায় জড়িত দের কে দ্রুত আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে ঐ এলাকার ১নং ওয়ার্ডের আ.লীগ সভাপতি ও বেনাপোল বন্দরের হ্যান্ডলিং শ্রমিক-৯২৫ এর সহ সভাপতি মো. আব্দুর রশিদ এক বিবৃতিতে বলেন, “সন্ত্রাসীদের কোন দল নাই, সন্ত্রাসী কার্যক্রম যারা চালিয়েছে, আ. লীগ সরকার তাদের কে বরদাস্ত করবে না”। বাজার ব্যবসায়ীদের সাথে সহমত পোষণ করে সন্ত্রাসীদেরকে গ্রেফতার করে দ্রুত আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
বেনাপোল পোর্টথানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মামুন খান জানিয়েছেন, আহত কামারুল কে আমরা উদ্ধার করেছি এবং আসামি আব্দুর রব কে আমরা ধরতে সক্ষম হয়েছি, বাকি পলাতক অস্ত্রবাজদের কে ধরতে পুলিশের তৎপরতা জোরদার রয়েছে, সন্ত্রাসীরা যেখানেই আত্মগোপণ করে থাকুক না কেন, আমরা তাদেরকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করবো।

আরো পড়ুন