বিয়ে বাড়ির আনন্দ নিমিষে মলিন!চলছে শোকের মাতম!

মণিরামপুর(যশোর) প্রতিনিধি:
রাত পোহালেই শুক্রবার খালাতো বোন মিতুর বিয়ে।আত্বীয়স্বজনরা টুকটাক আসা শুরু করেছে।আজ বৃহস্পতিবার গায়ে হলুদ।তাইতো আগে থেকেই ফুল দিয়ে সাজাতে হবে বাড়ি।বিয়ের গেট ফুল দিয়ে সুন্দর করে সাজিয়ে বর পক্ষের কাছ থেকে নিতে হবে নগদ টাকা।কত কিছুই পরিকল্পনা ছিলো ভাই নয়নের। তাইতো পাশের বাড়ির বন্ধু কে সাথে নিয়ে তিনজন মিলে ঝিকরগাছা গদখালিতে ফুল কিনতে যাওয়া।কিন্তু বিধি বাম বোনের বিয়ের ফুল আনতে পারল না তারা। বিয়ের ফুল কিনতে গিয়ে যশোরের ঝিকরগাছায় ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিন কিশোরই নিহত হয়েছে। বুধবার দুপুর ১টার দিকে ঝিকরগাছা উপজেলার বেনেয়ালী মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলো- কনের মামাতো ভাই যশোর শহরের শংকরপুর এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে জীবন হোসেন (১৯), কনের খালাতো ভাই মণিরামপুর উপজেলার রোহিতা ইউনিয়নের নওয়াপাড়া গ্রামের হাসানুজ্জামান হাসানের ছেলে তৌহিদুল ইসলাম (১৪) ও একই গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে নয়ন হোসেন (২০)।নিহত তৌদিহের চাচা মণিরামপুরের নওয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মহব্বত আলী জানান, তার ভাতিজি (ভাইয়ের মেয়ে) মিতা খাতুনের গায়েহলুদ বৃহস্পতিবার। আর বিয়ে হওয়ার কথা ছিল শুক্রবার। আত্মীয়স্বজন সবাইকে দাওয়াত দেওয়া হয়েছে। বুধবার দুপুরের দিকে মিতুর মামাতো ভাই জীবন ও খালাতো ভাই তৌহিদ প্রতিবেশী নয়নকে নিয়ে ঝিকরগাছার গদখালীতে ফুল কিনতে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে। বিয়েবাড়িতে এখন শোকের মাতম চলছে।
এ প্রসঙ্গে যশোর পুলিশের মুখপাত্র ও ডিবির ওসি রুপন কুমার সরকার জানান, ঘটনাস্থলেই একজন ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাকি দুজনের মৃত্যু হয়েছে।
পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে তারা তিনজন মোটরসাইকেলযোগে ঝিকরগাছার গদখালীতে ফুল আনতে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে উপজেলার বেনেয়ালী বাজার এলাকায় পৌঁছলে বেনাপোল থেকে যশোরগামী একটি পণ্যবাহী ট্রাকের সাথে তাদের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই জীবন হোসেন মারা যায়। আর যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তৌহিদুল ও নয়ন হোসেনের মৃত্যু হয়।
ঝিকরগাছা থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও দুইজন আহতের খবর পেয়েছি। হাইওয়ে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে।
যশোর জেনারেল হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক মেহজাবিন মুক্তি জানান, তৌহিদুল ও নয়ন হোসেনের বুকে ও মাথায় আঘাতে তাদের মৃত্যু হয়েছে। আর হাসপাতালে আসার আগে মারা গেছে জীবন হোসেন।

আরো পড়ুন