বাগেরহাটে প্রবাসীর পরিবারের ওপর ভূমিদস্যুদের হামলা, আহত-৪

এম.ইউ.মাহিম,বিশেষ প্রতিনিধিঃ

বাগেরহাটে প্রবাসীর পরিবারের ওপর ভূমিদস্যুদের হামলার অভিযোগ উঠেছে। বাগেরহাট সদর উপজেলার মাঝিডাঙ্গা এলাকায় গত বুধবার (১৩ এপ্রিল) এ ঘটনা ঘটে।

ভিকটিমদের সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৩৫ বছর ধরে নিজেদের পৈত্রিক ও ক্রয়কৃত সম্পত্তি ভোগদখল করে আসছেন আমির আলী শেখ। তাঁর একপুত্র রফিকুল ইসলাম পিয়ার দীর্ঘ ১৭ বছর পর কুয়েত থেকে দেশে ফিরেছেন। আরেক পুত্র মিজানুর রহমান সিঙাপুর প্রবাসী। তাঁর আর্থিক স্বচ্ছলতা ও ভোগদখলীয় জমির অধিক মূল্য হওয়ায় লোলুপ দৃষ্টি পড়ে এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যুদের৷ তাঁদের সঙ্গে যোগসাজশে জমি জবরদখল করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে এখলাছ শেখ ও জামাল শেখ গং। বিভিন্ন সময়ে তুচ্ছ ঘটনা রটিয়ে হামলা, ভাঙচুর,মারপিট ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। পাঁচ বছর আগে অভিযোগ নিয়ে থানায় সালিশ মিমাংসায় বসলেও ভূমিদস্যুরা তাতেও সায় দেয়নি। তাদের ভোগদখলীয় জমির কিছু অংশ জবরদখল করে বসবাস করছেন ভূমিদস্যু ইদ্রিস শেখ।

সর্বশেষ পুকুরে মাটি দেওয়াকে কেন্দ্র করে বাড়িতে এসে ঘর থেকে বের করে তাঁর পরিবারের ওপর দেশীয় অস্ত্রসহ অতর্কিত হামলা চালায় এখলাছ শেখ, হোসেন শেখ, জামাল শেখ, ফয়সাল শেখ, ইদ্রিস শেখ ও কামাল শেখ।

এ সময় আমির আলি শেখ,তাঁর স্ত্রী রহিমা, পুত্র রফিকুল ইসলাম পিয়ার, তাদের নিকটাত্মীয় আজগর আলী আহত হন। আহতরা চিকিৎসা নিয়ে বাসায় ফিরলেও রফিকুল ইসলাম পিয়ারের মাথায় কোপ লাগায় তিনি গুরুতর আহত হয়ে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছেন। রফিকুল ইসলাম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, সুদীর্ঘ বছর প্রবাস জীবনে থেকে যে দেশে রেমিট্যান্স পাঠিয়েছি। আজ সেই দেশে এসে আমাকে রক্তাক্ত হতে হলো। জেলা ছাত্রলীগ নেতা মনি পক্ষপাতিত্ব করে হামলাকারীদের ইন্ধন ও উস্কানি দিচ্ছেন। আমরা থানায় লিখিত অভিযোগ দিলেও পুলিশ এখনো আসামিদের গ্রেফতার ও কার্যকর কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করছেনা। ঘটনার একদিন পর আসামিরা নিজেদের একজনকে নিজেরাই পিটিয়ে আহত করে, পুনরায় হাসপাতালে নিয়ে ডাক্তারের সঙ্গে যোগসাজশে ব্যান্ডেজ করে থানায় আমাদের নামে মামলা দিয়েছে, পুলিশ সে মামলা গ্রহণ করেছে। আমি সারহান নাসের তম্ময় এমপির কাছে এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

বাগেরহাট মডেল থানার ওসি কে. এম. আজিজুল ইসলাম বলেন, মারধরের ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন