বাংলার মানুষের চোখে সৎ ও নিষ্ঠাবান পুলিশ অফিসার হাসান হাফিজুর রহমান

 

পুলিশ জনতার, জনতা পুলিশের” এই স্লোগানকে বাস্তবে রূপ দিয়েছেন অফিসার ইনচার্জ (OC) মোঃ হাসান হাফিজুর রহমান। তিনি বাংলাদেশের মানুষের চোখে একজন সৎ, আদর্শবান, ন্যায়নিষ্ঠ ও গরিবের বন্ধুসুলভ পুলিশ অফিসার। অধিকাংশ মানুষই তাকে গরিবের বন্ধু হিসাবে জানেন। তিনি তাঁর সততা, ন্যায়নিষ্ঠা ও তার বিচক্ষণ বুদ্ধিমত্তা দিয়ে তার দায়িত্বরত এলাকা মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও দখল বাজদের হাত থেকে মুক্ত করেছেন। তার চোখে ধনী-গরিব, রিক্সাচালক হতে সব শ্রেণিপেশার মানুষ সমান। তিনি শুধু একজন পুলিশ কর্মকর্তাই নন পাশাপাশি অনেক সামাজিক কর্মকান্ডে তিনি অবদান রেখেছেন।অফিসার ইনচার্জ হাসান হাফিজুর রহমান এর মুখের ভাষা বর্তমান সরকার গণমানুষের বন্ধু, সরকার আমাদের পাঠিয়েছেন মানুষের মুখেহাসি ফোটাতে, মানুষের সাথে মিলেমিশে তাদের সুখ দুঃখ ভাগাভাগি করে নিতে। আমরা মানুষের অতন্ত্র প্রহরী আমাদের কাজ হচ্ছে দেশকে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, চাদাঁবাজ, ইভটিজার মুক্ত করে মানুষের মাঝে শান্তি ফিরিয়ে আনা। হাসান হাফিজুর রহমান এর মনের কথা -আপনারা পুলিশ কে নিজের বন্ধু ভাবুন, পুলিশ জনগণের বন্ধু। পুলিশ জনগণের শুধু বন্ধুই নয়, সেবকও। আমরা পুলিশ সব সময়ই জনগণের বন্ধু হিসেবে জনগণের পাশে ছিলাম এবং আগামীতেও থাকবো ইনশাআল্লাহ। তরুণ উদীয়মান সাংবাদিক নেতা কবির নেওয়াজ রাজ বলেন, যে দিন বাংলাদেশের প্রতিটা থানায় একজন করে OC মোঃ হাসান হাফিজুর রহমানের মতো সৎ পুলিশ অফিসার থাকবে সেদিনই বাংলাদেশ হয়ে উঠবে নিরাপদ, সুন্দর এবং শান্তিময় দেশ। কলামিষ্ট কবির নেওয়াজ রাজ আরো ও বলেন, হাসান হাফিজুর রহমানের মতো একজন OC পাওয়া সত্যিই ভাগ্যের ব্যাপার। তারমতো দক্ষ, সৎ ও কর্তব্যপরায়ন পুলিশ অফিসার বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর জন্য গর্ব। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমির আইন প্রশিক্ষক হিসাবে কর্মরত আছেন। তার অভিজ্ঞতা ও নিষ্ঠা দিয়ে বাংলাদেশ পুলিশের নবাগত অফিসারদের প্রশিক্ষণ দিয়ে সমৃদ্ধ ও অপরাধমুক্ত বাংলাদেশের গড়ার স্বপ্ন দেখছেন।

আরো পড়ুন