নোয়াখালী সুবর্ণচরে মোবাইল দোকানে দূধর্ষ চুরি, ২ লক্ষ টাকার মালামাল লুট

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী সুবর্ণচর প্রতিনিধিঃ নোয়াখালী সুবর্ণচরে টেলিকম দোকানে তালা ভেঙ্গে দূধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে, ১১ টি এনড্রোয়েট মোবাইল ফোন এবং ১০টির বেশী হ্যান্ডসেট, নগদ অর্থ সহ মূল্যবান মোবাইলের যন্ত্রাংশ নিয়ে যায়। ব্যবসায়ীর দাবী চুরির ঘটনায় তার প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন চরজব্বার থানা পুলিশ।
ঘটনাটি ঘটে, ৩ আগষ্ট (মঙ্গলবার) সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবিলী ইউনিয়নে অবস্থিত উপজেলার বানিজ্যিক কেন্দ্র নামে খ্যাত হারিছ চৌধুরীর বাজারের লাবীব টেলিকমে।
এঘটনায় নিন্ধা এবং ক্ষোভ জানিয়েছেন বাজারের ব্যাবসায়ীবৃন্দ এবং জনসাধারণ, তারা অতিসত্বর জড়িতদের বের করে শাস্তির দাবী জানান।
ক্ষতিগ্রস্থ ব্যাবসায়ী আব্দুল জব্বার (৩৬) চরজুবিলী ইউনিয়নের পশ্চিম চরজুবিলী গ্রামের আওয়ামি লীগ নেতা আব্দুল মালেকের পুত্র।
লাবীব টেলিকমের প্রোপ্রাইটর মোঃ আব্দুল জব্বার জানান, ৩ আগষ্ট রাত ১ টা পর্যন্ত তিনি দোকানে ছিলেন, হিসেব নিকেশ শেষ করে বাড়ী ফেরেন তিনি। তার ধারনা রাত ৩ থেকে ৪ টার মধ্যে চোরের দল এ ঘটনা ঘটায়।
তিনি আরো বলেন, সকাল ১০ টায় দোকান খুলতে গেলে দেখেন দোকানের তালা ভাঙ্গা দোকানে প্রবেশ করে দেখেন ক্যাশ বাক্স, শোকেস গ্লাস ভাঙ্গা, মোবাইল রাখার শোকেস ভেঙ্গে ১১ টি এনড্রোয়েট মোবাইল ফোন, ১০ টির বেশী নরমাল মোবাইল ফোন, নগদ টাকা এবং মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যান।
তিনি এ বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।
বাজার পরিচালনা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মহি উদ্দিন মাষ্টার ঘটনার সত্যতা স্বিকার করে বলেন, আমি সরেজমিনে এসে দেখে গেছি, রাতে চৌকিদার কারা ছিলো তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে সেই সাথে আইনি পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।
চরজব্বার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়াউল হক তরিক খন্দকার বলেন, চরজব্বার থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন, এখনো লিখিত অভিযোগ পাইনি, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

আরো পড়ুন