সুবর্ণচরে নিজ অর্থায়নে সড়ক সংস্কার করছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী

মো: ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি:    নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার ৩ নং চরক্লার্ক ইউনিয়নের অধিকাংশ সকড়ই যেন মরণ ফাঁদ! দির্ঘদিন সড়ক মেরামত না হওয়ায় বেড়েছে জনদূর্ভোগ, পরিবহণ চলাচল না করায় ক্ষতির মুখে পড়ছেন কৃষকরা।

 

কৃষক ও জনসাধারণের কথা চিন্তা করে সরকারি বরাদ্ধ আসার আগেই নিজের অর্থায়নে সিদ্দিক মার্কেট থেকে হাজি ইদ্রিস মিয়ার বাজার সকড়ের ৭ কিলো মিটার সড়ক মেরামত করে যাচ্ছেন ৩ নং চরক্লার্ক ইউনিয়নের নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ হানিফ ক্যাশিয়ার। সংসদসদস্য একরামুল করিম চৌধুরী ও সুবর্ণচর উপজেলা চেয়ারম্যান এ.এইচ.এম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিমের দিকনির্দেশনায় তিনি এই কাজ করে যাচ্ছেন পরপরবর্তিতে সরকারি বরাদ্ধ পেলে মেরামতের টাকা ফেরত দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

প্রতিদিন ৫০/৬০ জন শ্রমিক কাজ করছেন, সকড়টির মেরামত ব্যায় হচ্ছে প্রায় ৭ লক্ষ টাকা যা এখন খরচ করছেন হানিফ ক্যাশিয়ার।

তিনি বলেন, জনদূর্ভোগের কথা ভেবেই আমি সকড়ের মেরামত করার উদ্যােগ গ্রহন করি, এলাকার মানুষ কৃষি নির্ভর যাতায়াতের কারনে তারা ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন তাছাড়া সকড়ের বেহাল দশার কারনে প্রতিনিয়ত ছোট খাটো দূর্ঘটনার শিকার হতে হয় পথচারীদের। তাই সরকারি বরাদ্ধের কথা না ভেবেই কাজ করে যাচ্ছি।

 

সড়কের কাজ ২২ এপ্রিল থেকে সকড়ের কাজ শুরু হয়েছে আরো ১০ দিনের মধ্যেই সকড়ের কাজ শেষ হবে বলে মনে করছেন তিনি। বর্ষার আগে সকটির কাজ শেষ হলে উপকৃত হবে এই অঞ্চলের হাজার হাজার মানুষ। এলাকাবাসি তার এমন উদ্যোগে সাধুবাদ জানিয়েছেন, তারা বলেন, দির্ঘদিন সকড়টি অবহেলিত থাকার কারনে আমাদের অনেক দূর্ভোগ পোহাতে হয়েছে, হানিফ কেশিয়ার সকড়টি মেরামতের কাজ করে আমাদের চলাচলে গতি এনে দিয়েছেন।

আরো পড়ুন