ধোবাউড়ায় টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে নদীর বাঁধ ভেঙ্গে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত।

তাপস কর,ময়মনসিংহ প্রতিনিধি।

ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে নদীর বাধ ভেঙ্গে নিন্মঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। গত তিন দিনের টানা বর্ষণে ধোবাউড়ার বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে নেতাই নদীর বাঁধ ভেঙ্গে প্রবল স্রোতে পানি প্রবেশ করছে। এতে প্লাবিত হচ্ছে ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার নিম্নাঞ্চলগুলো।
এখনো মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে। এতে আতংকে দিন কাটছে নেতাই পাড়ের মানুষ ও নিচু এলাকার সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষজনের। ইতিমধ্যে নিম্ন এলাকার অনেক পরিবার পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে।
এব‍্যাপারে স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, গামারীতলা ইউনিয়নের কলসিন্দুর এলাকার মুক্তিযোদ্ধা বিল্লাল হোসেনের বাড়ির পাশ দিয়ে নেতাই নদীর বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে যায়। এতে প্রবল স্রোতে পানি প্রবেশ করছে। ফলে রায়পুর, কামালপুর ছান্দেরনগরসহ বিভিন্ন এলাকার ঘরবাড়ি পানিতে তলিয়ে গেছে। ঘোষগাঁও ইউনিয়নের নয়াপাড়া, দিঘলবাগ,কালিকাবাড়িসহ বিভিন্ন গ্রামের অনেক পরিবার ও গরুছাগল পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এছাড়াও পোড়াকান্দুলিয়া ইউনিয়নের বেতগাছিয়া, বহরভিটা, উদয়পুরসহ নিম্ন এলাকাগুলো প্লাবিত হচ্ছে।
এ ব্যাপারে গামারীতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন খান জানান,যে তিনি নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেছেন। তিনি চেষ্টা করছেনা ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদেরকে নিরাপদে রাখতে।
ঘোষগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শামসুল হক জানান, ভালুকাপাড়া এবং রায়পুর এলাকায় বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে গিয়ে অনেক অসহায় মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।
এ ব্যাপারে ধোবাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাফিকুজ্জামান বলেন পানিবন্দি মানুষদেরকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করা হবে এবং বিষয়টি পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানানঘ হয়েছে।

আরো পড়ুন