দুদকের দুর্নীতি মামলার আসামী গণপূর্তমন্ত্রীর এপিএস ! 

আছেন বহাল তবিয়তে

স্টাফ রিপোর্টার:
দুদকের(দুর্নীতি দমন কমিশন) মামলায় লড়তে আদালতে গিয়ে পরিচয় হয় বর্তমান গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের সাথে। সেই পরিচয়ে আজ তিনি বনে গেছেন মন্ত্রী’র এপিএস। নাম তার এম জুয়েল রহমান। যদিও মামলাটি বিভিন্ন ভাবে তদবির করে ধামাচাপা দিতে সক্ষমও হয়েছেন তিনি। সেই সুযোগ আর সক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে আবারো বেপরোয়াভাবে দুর্নীতি করে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।এখন তার নিয়ন্ত্রণে গণপূর্ত ও গৃহায়ণ মন্ত্রণালয়ের টেন্ডার বানিজ্য !
জানা গেছে, সাবেক স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানকের পিএ ছিলেন তিনি। তার মন্ত্রীত্ব শেষ হওয়ার পরপরই দুর্নীতির অভিযোগে জুয়েল এর বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন। এই মামলায় লড়তে গিয়েই তখন দারস্থ হন বর্তমান গণপূর্তমন্ত্রী স্বচ্ছ ইমেজের ব্যক্তিত্ব শ ম রেজাউল করিমের সাথে।
মামলার সুবাধেই শ ম রেজাউল করিম এর সাথে আস্তে আস্তে ঘনিষ্ঠ হতে থাকেন জুয়েল। এরপর শ ম রেজাউল করিম বিগত নির্বাচনে এমপি নির্বাচিত হয়ে গণপূর্তমন্ত্রী হলে কলা-কৌশলে সাবেক স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রীর পিএ এর অভিজ্ঞতা দেখিয়ে জুয়েল ভাগিয়ে নেন মন্ত্রীর এপিএস পদ। পদ পেয়েই তার আগের বিত্ত বৈভবে  ফিরে যান তিনি। এরপরই মন্ত্রীর বিশ্বস্ততার সুযোগ নিয়ে মন্ত্রণালয়ে আধিপত্য বিস্তার করতে উঠেপড়ে লাগেন।
জানা গেছে, মন্ত্রীকে বিভিন্নভাবে ভুল বুজিয়ে নিয়োগ বানিজ্য থেকে শুরু করে বদলি, বিভিন্ন অফিসারদের পদায়ন, টেন্ডার সবই জুয়েল এর তদবির তদারকিতে হয়। দল ক্ষমতায় আসার সাথে সাথে গণপূর্ততে বর্তমান সময়ের বহুল    আলোচিত ঠিকাদার ও টেন্ডার কিং  জি কে শামীম এর আধিপত্য ধরে রাখতেই জুয়েলকে ম্যানেজ করেন কোটি কোটি টাকার বিনিময়ে। গনপুর্ততে আলোচিত আছে এই দুর্নীতিবাজ ঠিকাদারদের কবল থেকে মন্ত্রণালয়কে মুক্ত করতে মন্ত্রী বার বার উদ্যোগ নিলেও এই জুয়েল সিন্ডিকেট এর কারনেই বহাল তবিয়তে থাকেন।
অভিযোগ উঠেছে, রাজনৈতিক জীবনের শুরুতে ছাত্রদলের রাজনীতি দিয়ে শুরু করলেও পরবর্তীতে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে নাম লেখান জুয়েল। অন্যদিকে জাহাঙ্গীর কবির নানকের সাথে সু-সম্পর্কের সুবাধে যুবলীগের রাজনীতিতেও জড়িত হন তিনি ।তার এসব দুর্নীতি ও টেন্ডার বানিজ্যের বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়েছে।এছাড়াও তার নামে বেনামে একাধিক অবৈধ সম্পদের তথ্যবহুল আলোচনা আসছে আগামী পর্বে।
আরো পড়ুন