তজুমদ্দিনে গৃহবধুর গলায় রশি পেঁচানো লাশ উদ্ধার

এম নুরুন্নবী, তজুমদ্দিন প্রতিনিধি৷৷

এম, নুরুন্নবী, তজুমদ্দিন প্রতিনিধি৷৷
ভোলার তজুম‌দ্দি‌নে যৌতু‌কের দাবীতে আক‌লিমা বেগম (২৭) না‌মের এক গৃহবধূ‌কে রাতভর নির্যাতন করে গলায় রশি পেঁচিয়ে হত‌্যা করার অ‌ভি‌যোগ উ‌ঠে‌ছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন।

বৃহস্প‌তিবার (১১ ফেব্রুয়া‌রি ) সকা‌লে নিহ‌তের স্বামীর ঘর থে‌কে গলায় দ‌ড়ি বাঁধা অবস্থায় নি‌চে প‌ড়ে থাকা লাশ উদ্ধার ক‌রে পু‌লিশ। এঘটনায় নিহতের স্বামীসহ পরিবারের অন্যান্যরা পালাতক রয়েছেন।

নিহত আক‌লিমা ভোলার তজুম‌দ্দিন উপ‌জেলার শম্ভুপুর ইউ‌নিয়‌নের ১নং ওয়া‌র্ডের নতুন হাট বাজার এলাকার মোঃ ফরহা‌দের স্ত্রী ও বোরহানউ‌দ্দিন উপ‌জেলার প‌ক্ষিয়া ইউ‌নিয়‌নের ৩ নং ওয়া‌র্ডের মোঃ আ‌জিজল হ‌কের মে‌য়ে।

নিহ‌তের বাবা আ‌জিজল জানান, বৃহস্পতিবার সারারাত আমার মেয়েকে মারধোর করে। এনিয়ে স্থানীয়রা কয়েকদফা শালিসও করে। পরে তাদের কথামত যৌতুকের টাকা না পেয়ে রাতে আমার মেয়েকে হত্যা করে গলায় রশি পেছিয়ে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিতে চেয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, গত ৯ বছর আ‌গে তার মে‌য়ের সা‌থে ওই এলাকার বাবু‌লের ছে‌লে ফরহা‌দের বি‌য়ে হয়। আক‌লিমা দুই সন্তা‌নের জননী। বি‌য়ের পর থে‌কে ফরহাদ যৌতু‌কের জন‌্য আক‌লিমা‌কে মারধর কর‌তো। এ নি‌য়ে বেশ ক‌য়েকবার স্থানীয়ভা‌বে আক‌লিমার শ্বশুড়র বা‌ড়ি সা‌লিশ মিমাংশার বস‌লেও নির্যাতন বন্ধ হয়‌নি। এ ঘটনার প‌রি‌প্রেক্ষি‌তে গত মঙ্গলবার (৯‌ ফেব্রুয়া‌রি ) আক‌লিমা‌কে আবারও প্রচুর মারধর ক‌রে ফরহাদ ও রাত মা । এ নি‌য়ে গতকাল বুধবার স্থানীয়ভা‌বে শা‌লিশ হয়। ওই রা‌তেই আক‌লিমা‌কে ফরহাদ ও তার বাবা বাবুল, মা সাহানারাসহ তা‌দের হত‌্যা ক‌রে গলায় দ‌ড়ি লা‌গি‌য়ে লাশ ঘ‌রের ভিত‌রে রেখে পা‌লি‌য়ে‌ছে ব‌লে তি‌নি অ‌ভি‌যোগ ক‌রেন।

ইউ‌পি সদস‌্য বাবুল জানান, নিহত গৃহবধূ‌কে তার স্বামীসহ প‌রিবা‌রের সদস‌্য নির্যাতন কর‌তো। গতকাল বুধবারও নির্যাত‌নের এ ঘটনায় তারা শা‌লিশ ক‌রেন। আজ সকা‌লে শুনলাম ওই গৃহবধূর মৃত‌্যু হ‌য়ে‌ছে। তি‌নি আ‌রো জানান, নি‌হ‌তের স্বামী একজন বখা‌টে। সে কোন কাজ ক‌রে না। তার বিরু‌দ্ধে এলাকায় অ‌নেক অ‌ভি‌যোগ র‌য়ে‌ছে।

তজুম‌দ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ও‌সি ) এসএম জিউল হক জানান, খবর পে‌য়ে আমরা লাশ উদ্ধার ক‌রে থানায় নি‌য়ে আ‌সি। ময়না তদ‌ন্তের জন‌্য ভোলা সদর হাসপাতা‌লে পাঠা‌নো হ‌বে। নিহ‌তের স্বামী, শ্বশুড়, শ্বাশ‌ড়িসহ প‌রিবা‌রের সদস‌্যরা পলাতক র‌য়ে‌ছে।তি‌নি আ‌রো জানান, এ‌টি হত‌্যা না কি আত্মহত‌্যা সেটা ময়না তদ‌ন্তের রি‌পোর্ট আস‌লে আমরা নি‌শ্চিত হ‌বে পার‌বো।

আরো পড়ুন