চরফ্যাসনে ফাঁকা বাড়িতে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা

চরফ্যাসন প্রতিনিধি।। 

চরফ্যাসনে ফাঁকা বাড়িতে গৃহবধূর উপর চড়াও লম্পট যুবক। মুখ চেপে ধরে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল অভিযুক্ত জামাল মাঝির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে শশিভূষণ থানার রসুলপুর ইউনিয়ন এর ৯ নং ওয়ার্ডে। অভিযোগ,বাড়িতে সেই সময় গৃৃহবধূর জামাই ছিল না। ফাঁকা ছিল বাড়ি। বাড়িতে জামাই না থাকার সুযোগ নিয়েই অভিযুক্ত ওই স্থানীয় জামাল মাঝি রাতে গৃহবধূ ঘরের বাহিরে গেলে, ঘরের মধ্যে ঢুকে এর আগেও ওই গৃহবধূর ঘরের টিন কেটে ঘরে ঢুকে অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে । গত ৩১ মার্চ বুধবার দিবাগত রাতে ঘরের বাহিরে থেকে এসে গৃহবধূ ঘরের দরজা আটকে দিলে অভিযুক্ত জামাল মাঝি ঘরের চৌকির নিছে পলাতক থাকে।

এমতাবস্থায় গৃহবধূ ঘুম গেলে এরমধ্যেই ওই গৃহবধূর মুখ চেপে ধরে তাঁকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়। গৃহবধূর চিৎকারে ছুটে আসে তাঁর শাশুড়ী। অভিযোগ, শাশুড়ী আসতে নাআসতে দৌড়ে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত জামাল মাঝি। ও-ই গৃহবধূর শাশুড়ী থানায় অভিযোগ করবেন বলে প্রস্তুত নেন এ সময় আশপাশের মানুষ সহ স্থানীয় ইউপি সদস্য ছুটে আসেন। ওই ইউপি সদস্য বিচার করবে বলে বিষয়টি আমলে নেয় পরে গৃহবধূকে তার বাবার বাড়িতে হস্তান্তর করা সহ পাশাপাশি অভিযুক্ত জামাল মাঝিকে পালিয়ে থাকার জন্য সাহায্য করেন বলে অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার বিষয় ইউপি সদস্য আমির হোসেন বলেন, রসুলপুর ইউপি চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম পন্ডিন স্থানীয় ভাবে মীমাংসা করে দিয়েছেন।

অভিযুক্ত জামাল মাঝির ফোনে একাদিক বার ফোন দিলেও রিসিভ করে নাই, তাই তার সাক্ষাৎকার নেওয়া সম্ভব হয় নাই। শশীভূষণ থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পাইনি কেউ যদি অভিযোগ করে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরো পড়ুন