চরফ্যাশনে ‘ব্যাকড’র উদ্যোগে অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

আমিনুল ইসলাম, চরফ্যাশন প্রতিনিধি৷৷

‘বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ফর কোস্টাল ডেভেলপমেন্ট’ এর উদ্যোগে ঈদবস্ত্র ও খাদ্য বিতরণ

চরফ্যাসন উপজেলার এইচএসসি-১৪ ব্যাচের কয়েকজন তরুণের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ফর কোস্টাল ডেভলপমেন্ট’ (ব্যাকড) এর ব্যবস্থাপনায় প্রায় একশ দরিদ্র অসহায়দের মধ্যে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে খাবার ও ঈদের পোশাক বিতরণ করা হয়েছে। চাল, ডাল, তেল, পেয়াজ, সেমাই ও ঈদের পোশাকসহ প্রায় এক হাজার টাকা মূল্যমানের এক একটি প্যাকেট বিতরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা।

মোঙ্গল ও বুধবার (১১ ও ১২ মে) দুইদিনব্যাপী বিতরণ কার্যক্রমের মধ্যে ছিলো দরিদ্রদের জন্য খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ও বাচ্চাদের মধ্যে ঈদের পোশাক বিতরণ। এ ছাড়াও সংগঠনটির উদ্যোগে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য ঈদের দিনও খাদ্য বিতরণ করা হবে বলে জানানো হয়েছে। স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ‘বিএসিডি’র ব্যবস্থাপনায় এই দুই দিনে সর্বমোট প্রায় একশ পরিবারকে সহায়তা করার কাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং ঈদের দিন প্রায় একশ বাচ্চাদেরকে খাবার বিতরণ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

কার্যক্রমের উদ্যোক্তাদের একজন হাছিবুর রহমান জানিয়েছেন – বিগত পাঁচ বছর ধরে চরফ্যাসন উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চলে ‘ঈদের আগে এ সহায়তা কার্যক্রম’ পরিচালনার ধারাবাহিকতায় এ বছর চরফ্যাসনের সর্বদক্ষিণের মাইনুদ্দিন ঘাট ভেড়িবাঁধ এলাকার সুবিধাবঞ্চিতদেরকে সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। একই সাথে ঈদের দিন নদী পাড়ের ভেড়িবাঁধ এলাকার সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য খাদ্য সহায়তা কার্যক্রম পরিচালিত হবে। এছাড়াও ভবিষ্যতে প্রতি বছর স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে এ কার্যক্রম পরিচালিত হবে বলেও জানান তিনি।

বিশেষভাবে এ কাজের সাথে যুক্ত ছিলেন – মো. হাছিবুর রহমান, এফ সালমান রহমান সান, আকিব হাসান, সালমান জিহান, নাদিম ইসলাম, আল আমিন ফাহিম, সাদিদ হামিম, মাহবুবুর রহমান, আব্বাস হোসেন, জামশেদ রহমান, অন্তু, মুহিব হাসানসহ আরও অনেকেই। স্বতস্ফুর্তভাবে স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে তারা কাজ করেছেন বলে জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ফর কোস্টাল ডেভলপমেন্টের কার্যক্রম সম্পর্কে জানা যায় – ২০২০ সালে করোনাকালীন সময়ে অসহায়দের জন্য সহায়তা কার্যক্রমকে ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠা পাওয়া এটি একটি জনসেবামূলক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। তবে এই সংগঠনের সাথে সংযুক্ত তরুণরা বিগত পাঁচ বছর ধরে প্রতি ঈদে ধারাবাহিকভাবে সহায়তা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। তরুণদের নিজস্ব উদ্যোগে একটি দায়বদ্ধতা থেকে বেশ সুচারুরুপে কার্যক্রমটি পরিচালিত হয় বলে জানা গেছে। অত্যন্ত গোছালো ও নিয়মতান্ত্রীকভাবে টার্গেট এরিয়ায় গিয়ে প্রকৃত অসহায়দের নাম লিস্টেড করে কার্ড দিয়ে আসা হয়। এরপর যথা সময়ে তা বিতরণ করা হয়। আগামিতেও তারা প্রতি বছর এ কার্যক্রম পরিচালিত হবে বলে জানানো হয়েছে। আসছে কুরবানীর ঈদ উপলক্ষেও ‘ব্যাকড’র এর উদ্যোগে গরু কুরবানী দিয়ে দরিদ্রদের মধ্যে মাংস বিতরণ করা হবে জানিয়েছেন তারা।

আরো পড়ুন