চরফ্যাশনে ফসলি জমি বাঁচাত অকার্যকর স্লুইসগেট বিষয়ে আলোচনা

আমিনুল ইসলাম, চরফ্যাশন প্রতিনিধি৷৷

ভোলার চরফ্যাশনে  উপজেলা জলবায়ু ফোরাম ও কোস্ট ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কৃষকের ফসলের জমি সুরক্ষিত রাখতে স্লুইসগেট সমূহের যথাযথ কার্যকারিতা নিয়ে আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় স্বাস্থ্য বিধি ও শাররিক দূরত্ব বজায় রেখে পানি উন্নয়ন বোর্ড ডিভিশন-২ এর নির্বাহি প্রকৌশলীর কার্যালয়ে সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে৷

 

অনুষ্ঠিত সংলাপে চরফ্যাশন উপজেলা জলবায়ু ফোরাম সভাপতি এম আবু সিদ্দিক এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রুহুল আমিন৷ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পানি উন্নয়ন বোর্ড (ডিভিশন-২) এর নির্বাহি প্রকৌশলী হাছান মাহমুদ, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু হাছনাইন এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আনিছুর রহমান৷

 

অনুষ্ঠানে স্থানীয় নাগরিক সমাজের পর্যবেক্ষনে স্লুইসগেট সমূহের যথাযথ  সমস্যা চিহ্নিত করে সমাস্যা থেকে উত্তরণে আয়োজিতা বিষয়ে ঘন্টাব্যাপী সংলাপ সঞ্চালনা করেন কোস্ট ফাউন্ডেশনের ভোলা জেলার সহকারি পরিচালক রাশিদা বেগম। এছাড়াও সংলাপে  অংশ নেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারি প্রকৌশলী মোঃ শাহ আলম ভূইয়া ও স্থানীয় ক্ষতিগ্রস্থ হাজারিগঞ্জ ইউনিয়নের কৃষক মোঃ জসিম৷

 

চরফ্যাশন উপজেলার ১২ টি স্লুইসগেটের মধ্যে ৭টি স্লুইসগেটের প্রাপ্ত সমস্যা নিয়ে যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট কার্যকরি বিহীত ব্যাবস্থা নেয়ার জন্য  সুপারিশসমূহ উপস্থাপন করেন সিএফটিএম প্রকল্পের প্রোগ্রাম অফিসার রাজিব ঘোষ। তার সাথে সার্বিক সহযোগিতা করেন সিএফটিএম প্রকল্পের একাউন্টস এন্ড এডমিন অফিসার মোঃ ইব্রাহীম।

 

সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, সরকার স্লুইসগেট সমূহ নির্মাণ করেছেন মানুষের উপকারের জন্য৷ সঠিক ব্যবস্থাপনার কারনে উপকারের পরিবর্তে মানুষের অসুবিধা চিন্তা হবে এটা মেনে নেয়া যায়না৷ তাই  স্লুইসগেটগুলো দ্রুত সময়ে সংস্কারের উদ্যোগ নিতে কর্তৃপক্ষের নিকট অনুরোধ জানিয়েছেন৷ প্রয়োজনে উর্ধ্বতন কর্মকতাদের নিকট  এই বিষয়ে চিঠি পাঠাবেন বলেও জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রুহুল আমিন৷

 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু হাছনাইন বলেন, চরফ্যাশনের উৎপাদিত ফসল দেশের গন্ডি পেরিয়ে এখন বিদেশেও রপ্তানি হয়। কিন্তু বিগত কয়েকবছর যাবৎ স্লুইসগেটগুলো অকার্যকর থাকায় বর্ষামৌসুমে লবনাক্ত পানি ঢুকে কৃষি ও বীজতলা প্লাবিত হয়ে কৃষক ও মৎস্যচাষিরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। যার দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব চরফ্যাশন তথা দেশের কৃষি নির্ভর অর্থনীতির উপর বিরুপ প্রভাব পড়ছে।

 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নির্বাহি প্রকৌশলী- পানি উন্নয়ন বোর্ড (ডিভিশন-২)  হাছান মাহমুদ বলেন, আমি শীগ্রই স্লুইসগেটগুলো পরিদর্শন করবো এবং প্রয়োজনীয় সংস্কারের জন্য আগামী অর্থবছরে জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। আর আমাদের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারগন বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে স্লুইসগেটের কপাট সংস্কারসহ পূনঃস্থাপনের কাজ করছে। আমরা সমন্বিতভাবে স্লুইসগেটগুলোর মনিটরিং ব্যবস্থা বৃদ্ধি করবো, যাতে এর সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত হয়।

 

আলোচনায় সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা জলবায়ু ফোরাম সভাপতি এম আবু সিদ্দিক উপস্থাপিত দাবীর সাথে একমত পোষন করায় সংশ্লিস্ট দপ্তরসমূহের কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, কৃষকের ক্ষয়ক্ষতির কথা চিন্তা করে সমন্বিত ভাবে আমাদের কাজ করতে হবে। যেহেতু আমাদের দেশের অর্থনীতি এখনও কৃষি নির্ভর। দেশের অর্থনীতি সচল রাখতে হলে কৃষক বাচাতে হবে। আমরা উপজেলা জলবায়ু ফোরাম যেকোনো সময় আপনাদের সাথে কাজ করতে প্রস্তুত রয়েছি। আজকে সংলাপে গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ দ্রুত বাস্তবায়ন ও কার্যকর করতে সার্বিক প্রত্যাশা কামনা করছি। চরফ্যাশন উপজেলা জলবায়ু ফোরাম স্লুইসগেটগুলো নিয়মিত পরিদর্শন কার্যক্রম অব্যাহত রাখবেন বলেও নিশ্চিত করেছেন এম আবু সিদ্দিক৷

আরো পড়ুন