চরফ্যাশনে নিষেধাজ্ঞা ও পুলিশের নির্দেশ অমান্য করে ঘর নির্মাণের চেষ্টা

আমিনুল ইসলাম, চরফ্যাশন প্রতিনিধি৷৷

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলা ওমরপুর ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ড (সাবেক আছলামপুর) আলীগাঁও এলাকায় স্থানীয় বখাটে সন্ত্রাসীদের ছত্রছায়ায় আঃ আলী হাওলাদার ১শ শতাংশ জমি রাতের আঁধারে জবরদখল করার অভিযোগ উঠেছে৷ জমির প্রকৃত মালিক বোরহানউদ্দিন উপজেলার হাসান নগর ইউনিয়ন ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ আবুল কালাম গং এই অভিযোগ সংবাদমাধ্যম প্রকাশ করেছেন৷

অভিযোগে জানা যায়, কিছুদিন পূর্বে আলীগাঁও এলাকার বখাটে মাসুদ, জসিম, জুবায়েদ, আলমগীর চৌকিদার ও মিজান রাজসহ এলাকার কিছু নেতাদেরকে দিয়ে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে জমির মালিক বোরহানউদ্দিন থাকার সুবাধে এই জমি দখল করেন৷ উক্ত জমিতে পাকা ঘর নির্মাণের লক্ষ্যে কাজ শুরু করেন৷ মালিক পক্ষ অবগত হওয়ার পর চরফ্যাশন আদালতে ৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন এবং বিজ্ঞ আদালত জমির উপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন৷ কিছুদিন বন্ধ রাখার পার সোমবার ২৬ এপ্রিল আদালতের আদেশ অমান্য করে সেই নেতাদের হুকুমে পুনরায় ঘর নির্মাণ কাজ শুরু করেন৷

এবিষয়ে জমির মালিক মোঃ আবুল কালাম জানান, জবরদখল করে রাতের আঁধারে আমাদের প্রায় ১শ শতাংশ জমি দখল করে বাড়ি বানানো এটা বর্তমান সময়ে নজিরবিহীন৷ কিছু সন্ত্রাসী বাহিনীকে টাকা দিয়ে এ কাজ করেছেন৷ আমি আইনের আশ্রয় নিয়েছি৷ আদালতের নিষেধাজ্ঞা ও চরফ্যাশন থানা পুলিশের নিষেধ মানছে না অপরাধীগন৷ আইনের তোয়াক্কা না করে তারা ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে অবৈধ ভাবে বাড়ি নির্মাণ করতে চায় তারা৷ আশাকরি অতি দ্রুত সময়ে আমাদের জমি উদ্ধার করতে পারবো৷

অভিযোগ প্রসঙ্গে আঃ আলী হাওলাদার বলেন, আমাকে জমি দিবে বলে তাদের ছাড়া বাড়িতে অনেক বছর রেখেছেন৷ আমি তাদের সুপারি, নারকেলসহ বিভিন্ন গাছপালা দেখাশোনা করেছি৷ অনেক চোর ডাকাতের নির্যাতন সহ্য করেছি৷ তাই জমি না দেয়ার করনে দখল নিয়েছি৷

আরো পড়ুন