চরফ্যাশনে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন৷ আর্থিক সংকটে মধ্যবিত্ত পরিবার

আমিনুল ইসলাম, চরফ্যাশন প্রতিনিধি৷৷

চলমান লকডাউনে ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলা শহর, বিভিন্ন বাজার ও মোড়ে মোড়ে বাধা দিচ্ছে পুলিশ প্রশাসন৷ যারা বাইরে বের হয়েছেন, তাদের জেরার মুখে পড়তে হয়েছে৷ করোনা ভাইরাসের বিস্তার বন্ধে এই লকডাউনে চরম আর্থিক সংকটে পরেছেন মধ্যবিত্ত পরিবারগুলো৷ স্বাভাবিক কাজকর্ম না থাকায় আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে অনেকের৷

বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) লকডাউনের ৮ম দিন পর্যন্ত সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১০১ ব্যক্তিকে ১লাখ ৬৯ হাজার ৬শত টাকা অর্থ দন্ড, ১জনকে ৩দিনের জেল এবং ২টি যাত্রীবাহী মাইক্রোবাস আটক করেছেন৷

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রুহুল আমিন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) রিপন বিশ্বাস, বিজিবি ও পুলিশ সদস্যরা গ্রুপে ভাগ হয়ে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক এই অভিযান পরিচালনা করছেন৷ প্রশাসনের এতো কঠোর অবস্থানের মধ্যেও অসংখ্য খেটে-খাওয়া মানুষ পরিবারের খাবার যোগাতে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে বেরিয়ে আসছেন বাহিরে৷ অনেকে আবার দূর থেকে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে ফিরে গেছেন বাড়িতে৷

এদিকে চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডাঃ মাহাবুব কবির জানান, এপর্যন্ত চরফ্যাশন হাসপাতালে ১ হাজার ১শত ৫০ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১শত ৫০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে৷ আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের৷

চলমান লকডাউন ও করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর সঠিক তালিকা করে খাদ্য ও আর্থিক সহয়তা প্রদান করতে সরকারের নিকট অনুরোধ জানিয়েছেন অনেকে৷ সামাজিক মর্যাদার কারণে অসংখ্য মানুষ কারও কাছে চাইতেও পারছেন না। ফলে নীরবেই কষ্ট সহ্য করতে হচ্ছে। খাবারের পাশাপাশি অনেকে বাসা ভাড়া নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন বলেও জানা যায়৷

আরো পড়ুন