ঘুর্ণিঝড় ইয়াশ এর প্রভাবে কুকরি মুকরি সহ নিন্মাঞ্চল প্লাবিত

আমিনুল ইসলাম, চরফ্যাশন প্রতিনিধি৷৷

চলমান ঘুর্ণিঝড় ইয়াশ এর প্রভাবে চরফ্যাশন উপজেলার চর কুকরি কুকরি, চর পাতিলা, ঢালচর, মাওলানা ভাসানী আশ্রয়ন প্রকল্প সহ উপকূলীয় এলাকাগুলো জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে৷ পানি বন্দী হয়ে আছে হাজারো পরিবার৷ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বসত ঘর, মাছের ঘের, সবজির খামার, চলাচলের রাস্তা, গৃহপালিত পশু৷ চুলায় আগুন দিতে পারেনি পানিতে প্লাবিত হওয়া অসংখ্য পরিবার৷ দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির অভাব৷ পানিবাহীত রোগ ছড়িয়ে পড়ার আশংকাও করছেন অসহায় মানুষগুলো৷

মোঙ্গল বার (২৫ মে) সরেজমিনে দেখা যায়, বেড়িবাঁধ না থাকায় খুব সহজেই জোয়ারের পানি ঢুকে প্লাবিত হয়েছে এসব এলাকা৷ এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে হাজারো মানুষ৷ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন ধরনের ত্রান বা সাহায্য পায়নি পানিবন্দি মানুষগুলো৷

চর কুকরি-মুকরি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসেম মহাজন বলেন, সকাল থেকে অতি মাত্রায় জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে চর পাতিলা সহ কুকরি মুকরির নিচু এলাকাগুলো৷ পানিবন্দিদের উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে আনার কাজ চলছে৷ ঘুর্ণিঝড় ইয়াশের প্রভাবে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর তালিকা তৈরি করে কর্তৃপক্ষের নিকট পাঠানো হবে বলেও জানান আবুল হাসেম মহাজন৷

আরো পড়ুন