খুলনা মহানগরীতে  ১৯ জনকে ২২ হাজার ৭ শত টাকা অর্থদন্ড-

স্বীকৃতি বিশ্বাস ঃ

বৈশ্বিক মহামারী করোনার দ্বিতীয় ঢেউ বাঁধ ভাঙা জোয়ারের মত বইছে সীমান্তবর্তী খুলনার উপর দিয়ে। করোনার এই টেউ মহানগরী খুলনা থেকে বিভিন্ন জেলা, জেলা থেকে উপজেলায় এমনকি সুদূর গ্রাম পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়েছে।আর তাই করোনা মহামারী থেকে দেশের জনগণকে রক্ষা করার জন্য করোনা প্রতিরোধ কমিটি ধফায় ধফায় মিটিং করে করণীয় বর্জনীয় ঠিক করে তা বাস্তবায়নের জন্য  দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন এবং আজও আগামী এক সপ্তাহের জন্য  লকডাউন ঘোষণা করেছেন।

 

করোনা মহামারীর প্রাণ সংহারীরূপকে প্রতিহত করতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মাস্ক ব্যবহার, জনসমাগম এড়িয়ে চলা,লক্ষণ দেখা দিলে আইসোলেশনে যাওয়া সর্বোপরি সামাজিক সচেতনতার কোন  বিকল্প নেই।

 

কিন্তু গতবছর ৮ মার্চ যখন  প্রথম বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয় তার পূর্বেই উল্লেখিত বিষয়সমূহ নিয়ে ব্যাপক প্রচার প্রচারণার পরও জনগণের বোধদয় করা সম্ভব হয়নি। আর তাই করোনার সংক্রমণে আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার বেড়েই চলছে।

করোনার এই সংহারক শক্তিকে রোধকল্পে জন সচেতনা বৃদ্ধি ও ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়নের জন্য খুলনা জেলার মাননীয় জেলা প্রশাসক জনাব মনিরুজ্জামান তালুকদার- এর নির্দেশনায় ২৮ জুন-২০২১ রোজ সোমবার জেলা ম্যাজিস্ট্রেটগণ খুলনা মহানগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন নিশ্চিত করতে মোবাইলে কোর্ট পরিচালনা করেন।

 

মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে সরকারি আদেশ অমান্যকারীদের সংক্রমণ রোগ ( প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইনের বিভিন্ন ধারায়  ১৯ মামলায় ১৯ জনকে ২২ হাজার ৭ শত টাকা জরিমানা আদায় করেন।

 

উল্লেখ্য করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধকল্পে জেলা প্রশাসনের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আরো পড়ুন