খড়গপুরে বেপরোয়া গাড়ির গতির প্রতিবাদে যুবককে ‘খুন’ প্রতিবেশীর !

ইন্ডিয়া ওড়িশা প্রতিনিধিঃজয় কুমার রায়:- 

বেপরোয়া গাড়ির গতির প্রতিবাদ করায় খড়গপুর শহরে প্রতিবাদীকে খুনের অভিযোগ উঠল প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে নিমপুরার ক্ষুদিরাম পল্লি এলাকায়।

মৃতের পরিবারের অভিযোগ, গতকাল রাতে ওই প্রতিবেশী পাড়ার রাস্তা দিয়ে বেপরোয়া গতিতে বাইক চালানোয় প্রতিবাদ করেন বছর ছাব্বিশের যুবক।

 

অভিযোগ, এনিয়ে বচসার জেরে যুবককে বেধড়ক মারধর করেন ওই প্রতিবেশী। সংজ্ঞাহীন অবস্থায় আক্রান্তকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত ঘোষণা করা হয়।

রাতে ঘটনাস্থলে যায় খড়গপুর টাউন থানার পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত প্রতিবেশী। এই প্রথম নয়। এর আগে, গত পরশু প্রতিবাদীকে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ ওঠে মালদার বৈষ্ণবঘাটায়।

মৃতের পরিবার সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার রাতে অশান্তির সূত্রপাত। মত্ত অবস্থায় ইন্দ্রজিৎ ঘোষের পরিবারকে গালিগালাজ করেন প্রতিবেশী ধীরাজ মণ্ডল।

রাতের মতো ঝামেলা মিটলেও, শুক্রবার সকাল থেকে ফের শুরু হয় অশান্তি। হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে ২ পরিবার। মৃতের পরিবারের অভিযোগ, এরপর হঠাৎই ইন্দ্রজিৎকে ধারালো অস্ত্রের কোপ মারেন ধীরাজ। ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন তিনি।

তার আগে, মালদার ইংরেজবাজারে স্ত্রীকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত হন এক ব্যক্তি। মারধর করা হয় ওই গৃহবধূ এবং তাঁর নাবালক ছেলেকেও।

মহিলার অভিযোগ, তিনি রাস্তায় বেরোলেই কটূক্তি করত প্রতিবেশী যুবক হুসেন আলি। এছাড়া প্রায়ই উত্যক্ত করা হতো, এমনকী কুপ্রস্তাবও দেওয়া হতো।

 

কৃষ্ণপুর অঞ্চলের বাসিন্দা এই মহিলার অভিযোগ, প্রতিবেশী যুবক হুসেন আলির বিরুদ্ধে। প্রায় এক বছর ধরে এই ঘটনা চলে আসছে। বাড়ি থেকে বেরোলেই কটূক্তি, কুপ্রস্তাবের মুখে পড়তে হতো তাঁকে। এই ঘটনার কথা স্বামীকে জানান তিনি। এরপরই প্রতিবাদ করেন স্বামী।

এরপর গতকাল রাতে ওই গৃহবধূর বাড়িতে হামলা চালায় এই প্রতিবেশী যুবক। মারধরের জেরে আহত হয়ে মালদা মেডিক্যালে ভর্তি ওই গৃহবধূর স্বামী ও নাবালক ছেলে।

 

প্রতিবেশী যুবকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই গৃহবধূ। তবে কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি বলে দাবি।

আরো পড়ুন