কেশবপুরে খুকশিয়ার ২৭ বিলে ৯৩টি শ্যালোমেশিন দিয়ে পানি সেচ কার্যক্রম পরিদর্শন 

প্রতিনিধি যশোর:-

কেশবপুরের সুফলাকাটি ইউনিয়নের বিল খুকশিয়ার ২৭ বিলের পানি সেচ কার্যক্রম পরিদর্শন ও কৃষকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার। পরিদর্শন শেষে শনিবার বিকেলে আট ব্যান্ড স্লুইস গেটের পাশে কৃষকদের সাথে মতবিনিময় করেন তিনি।

সুফলাকাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাস্টার আব্দুস সামাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন। এসময় তিনি বলেন, আগে যারা বলতেন ঘেরের মালিক-জমির মালিক, তারা শুধু নামে ছিলেন। বাস্তবে এ এলাকা ছিল সন্ত্রাসীদের অভয়ারণ্য। সর্বহারা, মৃণাল বাহিনীসহ বিভিন্ন বাহিনীর কারণে মানুষ শান্তিতে ঘরে ঘুমাতে পারতো না। যা কিছু উপার্জন করতো তাদের ভাগ দিয়ে অভাব অনটনের মধ্যে চলতে হতো। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে এখন মানুষ ঘরের দরজা খুলে ঘুমাতে পারে। বর্তমানে এখানকার ঘের যাদের কাছে হারি দেয়া ও জলাবদ্ধতা নিরসনে যে কমিটি আছে তাদের সাথে সমন্বয় করে পানি নিষ্কাশন করতে হবে। তাহলে কৃষকেরা ফসল উৎপাদনের পাশাপাশি ঘেরে মাছ চাষ করা সম্ভব হবে। মানুষ বাঁচলে, দেশ বাঁচবে।

সুফলাকাটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া মনির সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা রাখেন  উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমীন, সহসভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফা, পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গৌতম রায় ও কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্ত, দপ্তর সম্পাদক মফিজুর রহমান, পাঁজিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মুকুল, ত্রিমোহিনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান, গৌরিঘোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক বি এম শহিদুজ্জামান শহিদ এবং যুগ্ম আহ্বায়ক আবু সাঈদ লাভলু।

মতবিনিময় সভার পূর্বে সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদার ও তার সফরসঙ্গীরা বিল খুকশিয়ার ২৭ বিলে ৯৩টি শ্যালোমেশিন দিয়ে পানি সেচ কার্যক্রম পরিদর্শন এবং বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন।

 

আরো পড়ুন