আমার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার নষ্ট করতে উঠে পড়ে লেগেছে শত্রুপক্ষ: যুবলীগ নেতা ইমন       

স্টাফ রিপোর্টারঃ  সম্প্রতি দৈনিক যুগান্তরের অনলাইন সংস্করণে ‘দুর্নীতিবিরোধী অভিযানকে কটাক্ষ করে ভাইরাল আ.লীগ নেতা’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সেই সংবাদটিকে মিথ্যা, বানোয়াট বলে দাবি করেছেন অভিযুক্ত ঢাকা মহানগর উত্তরের মোহাম্মদপুর থানাধীন ৩৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক সাইফুর রহমান ইমন।

এক বিজ্ঞপ্তিতে ইমন বলেন, আমার পরিবার স্বাধীনতার সময় থেকেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। আমি এবং আমার পরিবারের রাজনৈতিক সফলতায় ঈর্ষান্বিত  হয়ে শত্রুপক্ষ ভুয়া স্ক্রিণশটের নাটক সাজিয়েছে। স্ক্রিণশটে যেসব কথাবার্তা উল্লেখ করা হয়েছে তার সঙ্গে আমি কোন ভাবেই সংশ্লিষ্ট নই। সবগুলোই এডিট করা।

এদিকে এই ঘটনায় গত ৩ অক্টোবর রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (২২৬ নং) করেছেন সাইফুর রহমান ইমন। ডায়েরিতে ইমন উল্লেখ করেছেন, বেশ কিছুদিন ধরেই আমার আইডি কে বা কারা যেন হ্যাক করতে চেষ্টা করছে। আর ঘটনার সময় আমি আমার পরিবারসহ ভারতে অবস্থান করছিলাম। এছাড়াও তিনি জানান, আমার কোন মেয়েবন্ধু থাকার প্রশ্নই আসে না। কেননা কয়েকবছর প্রেমের সম্পর্কের পর আমি ও আমার স্ত্রী বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই। সন্তানসহ আমাদের সুখের সংসার।

ইমন বলেন, ‘বাংলার চোর’ নামের যেই পেজ থেকে স্ক্রিণশটটি ফাঁস হয়েছে, সেই পেজ খোলা হয়েছে মাত্র কয়েকদিন আগে। পেজটি লাইকের সংখ্যাও মাত্র কয়েকটি। কাজেই এটি ভাইরাল হওয়ার প্রশ্নই আসে না। পরে সেটার সত্যতাও পাওয়া গেছে।

ইমনের বাবা একেএম অহিদুর রহমান মোহাম্মদপুরের প্রবীণ রাজনীতিবিদদের মধ্যে অন্যতম। ১৯৭৬ সালে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য হওয়ার মধ্যদিয়ে তার রাজনীতি শুরু হয়। এরপর তিনি ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক, সহ-সভাপতি এবং সভাপতি হন। বর্তমানে তিনি মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।

আরো পড়ুন