অসহায় মানুষের পাশে ঈদ উপহার নিয়ে ইয়াকুব সুনিক ফাউন্ডেশন

নিজস্ব প্রতিনিধি

ইয়াকুব সুনিক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ,সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী , দুবাই আবির বিজনেস অ্যাসোসিয়েশনের জেনারেল সেক্রেটারি, “ফিউচারহোম রিয়েল স্টেট গ্রুপের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর, চেইন রেস্টুরেন্ট সরফুদ্দিন গ্রুপ অফ রেস্টুরেন্টের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ইয়াকুব সুনিক নিজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে নগত অর্থ বিতরণ করেছেন।
গত ১৪ মে চট্টগ্রামের চাঁদগাও থানার ওনার নিজ এলাকা খলিফা পাড়ায় গোলাম নাজির বাড়িতে দুস্থ অসহায় মানুষের মাঝে এই নগদ অর্থ বিতরণ করেন তিনি।

এলাকার প্রায় ৫০০ পরিবারের মধ্যে এই নগদ অর্থ বিতরণ কালে ইয়াকুব সুনিক ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আগামী ঈদকে সামনে রেখে দুস্থ অসহায় মানুষগুলো যেন পরিবার পরিজন নিয়ে হাসিমুখে ঈদ করতে পারে এই লক্ষ্যে ফাউন্ডেশন নগদ অর্থ বিতরণ করেছেন বলে ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তারা জানান ।

অর্থ বিতরণ কালে নগদ অর্থ পেয়ে চাঁদগাও খলিফা পাড়া গোলাম নাজির বাড়ির জনসাধারণ জানান ইয়াকুব সুনিক সব সময় আমাদের পাশে ছিলেন এবারো আমাদের দুঃখ-দুর্দশার কথা ভেবে তিনি এগিয়ে এসেছেন। তাই আল্লাহর কাছে হাত তুলে প্রার্থনা করি আল্লাহ তালা যেন উনাকে আরো অনেক বড় করেন এবং অসহায় মানুষের পাশে থাকার তৌফিক দেন ।

উল্লেখ্য সংযুক্ত আরব আমিরাতের এই ব্যবসায়ী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিপাকে পড়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে ইতিমধ্যে ৩০০ ব্যক্তিকে খাদ্যদ্রব্য প্রদান করেছেন। পরে দ্বিত্বীয় দফায় ৩০০ ব্যক্তির মাঝে ৫০ হাজার দিরহাম নগদ অর্থ বিতরণ করেন ইয়াকুব সুনিক ।

পাশাপাশি তিনি তার নিজ এলাকা খলিফা পাড়ায় করোনার প্রাদূর্ভাবে বিপাকে পড়া স্থানীয় ৫০০ জনসাধারণের মাঝে খাদ্যদ্রব্য ও নগদ অর্থ বিতরণ করেছেন। এবার সহ তিনি দ্বিতীয় দফায় এই অর্থ বিতরণ করলেন।

ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ইয়াকুব সুনিক জানান করোনা প্রাদুর্ভাবে বিপর্যস্ত জনসাধারণ অন্তত ভালোভাবে খাওয়া দাওয়া করে যেন ঈদ কাটাতে পারে সে সেই লক্ষ্যে দ্বিতীয়বারের মতো আমি এই নগদ অর্থ বিতরণ করেছি। তিনি বলেন আল্লাহতায়ালা  আমাদের এক কঠিন পরীক্ষার মধ্যে অবতীর্ণ করেছে । এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে গেলে মানুষকে ধর্মীয় অনুশাসন গুলো মেনে চলতে হবে। অভাবগ্রস্ত মানুষগুলোর প্রতি সহানুভূতিশীল হতে হবে। মানুষের ধন সম্পদ দীর্ঘস্থায়ী নয় একথা মনে রেখে মন পরিষ্কার রেখে অসহায় মানুষের জন্য কাজ করে যেতে হবে। তখনি হয়তো আমরা আল্লাহতায়ালার সন্তুষ্টি ও মুক্তির পথ খুঁজে পাবো।

আরো পড়ুন