অভয়নগরে জাটকা বিক্রির দায়ে ৪ জনকে জরিমানা

 

নিলয় ধর,(যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের অভয়নগরে ফেরি করে জাটকা ইলিশ বিক্রির দায়ের ৪ মাছ বিক্রেতাকে জরিমানা করা হয়।
রবিবার (১৩ ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলার জয়রাবাদ গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়। এরপর ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাদের ৪ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নাজমুল হুসেইন খাঁন। এছাড়া ২০ কেজি জাটকা ইলিশ জব্দ করা হয়েছে।

উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা ফারুক হুসাইন সাগর জানায়, ওই ৪ মাছ বিক্রেতা মাথায় হাড়ি নিয়ে ‘ইলিশ আছে ইলিশ, ছোট-বড় ইলিশ’ হাক দিয়ে জয়রাবাদ গ্রামে ফেরি করে ইলিশ মাছ বিক্রি করছিল। বাড়ি বাড়ি মাছ বিক্রির বিষয়ে গ্রামবাসীর সন্দেহ হলে তারা তাকে খবর দেন। এরপর তিনি উপজেলা পরিষদ থেকে ২৩ কিলোমিটার দূরত্বে জয়রাবাদ গ্রামে গিয়ে স্থানীয় ক্যাম্প পুলিশের সহযোগিতায় জাটকা ইলিশসহ ৪ যুবককে আটক করেছেন। এরপর বিকেলে তাদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নাজমুল হুসেইন খাঁন সূবর্ণভূমিকে জানায়, চার হাড়িতে প্রায় ৮০ কেজি পরিমান ইলিশ মাছ পাওয়া যায়। ৪ যুবক গরিব হওয়ায় বড় সাইজের মাছগুলো ফেরত দেওয়া হয়েছে। জব্দ করা ২০ কেজি জাটকা মাছ এবং স্থানীয় দরিদ্রদের মাঝে বিলিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া জাটকা ইলিশ বিক্রির অপরাধে মৎস্য আইনে দণ্ডবিধি ৫ এর ১ ধারায় ওই চার মাছ বিক্রেতাকে এক হাজার করে ৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।জরিমানা আদায়ের পর তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

জরিমানা হওয়া ওই ৪ মাছ বিক্রেতা হলেন, হবিগঞ্জ জেলার আজমিরিগঞ্জ থানার রাহেলা গ্রামের কামাল মিয়ার ছেলে শিবলু মিয়া (২২), আবুল কালামের ছেলে মিজানুর রহমান সেলিম (২০), নুরুল হকের ছেলে তাকাব্বির হোসেন (২০) ও হাবিবুর রহমানের ছেলে রাজিব হোসেনকে (১৮)।

আরো পড়ুন