অভয়নগরের মেয়েকে গণধর্ষণ মামলায় ফুলতলার মানিক কুন্ডু গ্রেফতার

প্রতিনিধি যশোর:- 

অভয়নগরের এক নারী (২৮) কে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার আসামি মানিক লাল কুন্ডুকে খুলনার ফুলতলা থেকে গ্রেফতার করেছেন র‌্যাব। গত ১২ ফেব্রুয়ারি চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে যশোর সদরের বাহাদুরপুর মাঠপাড় এলাকায় নিয়ে এক নারীকে ধর্ষণ করে মানিক লাল কুন্ডু ও তার সহযোগি আনোয়ার এবং রিয়াজুল কাজী। তিনজনে মিলে গণধর্ষণের ঘটনায় এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬।

র‌্যাব জানান, রবিবার খুলনা জেলার ফুলতলা থানার তরতীবপুর গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি ওই এলাকার রসোময় কুন্ডুর ছেলে। মামলার অন্য আসামীরা হলেন- কানাই লাল কুন্ডু, আনোয়ার এবং রিয়াজুল কাজী। তাদের ২ জনকে এখনো গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

চাকরির কথা বলে ২০ হাজার টাকাও নেন। বিগত দুইমাস ধরে চাকরি না দিয়ে টালবাহানা করছিলেন। সর্বশেষ শুক্রবার ছুটির দিন নিয়োগ কর্তার বাড়ি যশোরে নিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছিলেন মানিক।

সেই মোতাবেক চাকরির কথা বলে, শুক্রবার বিকেলে মানিক কুন্ডু তাকে নিয়ে যশোরে আসেন। যশোর পৌঁছানোর পর আরও দুইজনকে সঙ্গে নেন মানিক। এরপর সন্ধ্যার দিকে ইজিবাইকে করে হাশিমপুর যাবার উদ্দেশে নিয়ে যায় তারা। পথে রাস্তায় নেমে মাঠের ভিতর দিয়ে যেতে হবে বলে জানান। কিছুদূর যাওয়ার পর তিনজন মিলে তাকে ধর্ষণ করার সময়ে চিৎকার করে।

এসময় তার চিৎকারে আসামিরা পালিয়ে যায় ও পথচারীরা এগিয়ে এসে তাকে যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন।

র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক লেফ. কর্ণেল রওশনুল ফিরোজ বলেছেন, এই ঘটনায় র‌্যাব ফুলতলা তরতীবপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে মানিক লালকে আটক করে। সে ওই গ্রামের মৃত. রসোময় কুন্ডুর ছেলে।

আরো পড়ুন